প্রতীকী ছবি৷

স্টাফ রিপোর্টার, বারাকপুর: মুখ্যমন্ত্রীর বিদেশ সফরের শ্বেতপত্র প্রকাশের দাবি তুললেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়৷ তাঁর দাবি,‘‘মুখ্যমন্ত্রী বারংবার বিদেশ সফরে গেলেও রাজ্যে কোনও শিল্প আসেনি৷ উনি শ্বেতপত্র প্রকাশ করলেই তা স্পষ্ট হয়ে যাবে৷ তাই প্রকাশ করছেন না৷’’

সংঘের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা শ্যামাপ্রাসাদ মুখোপাধ্যায়ের মৃত্যু দিবস উপলক্ষ্যে শনিবার উত্তর ২৪ পরগনার বারাকপুরের বটতলা এলাকায় রক্তদান শিবিরেরর আয়োজন করেছিল বিজেপি৷ সেই কর্মসূচিতে যোগ দিতে এসে এই ভাষাতেই মুখ্যমন্ত্রীর বিদেশ সফরকে কটাক্ষ করেন মুকুল। তাঁর কথায়, ‘‘৭ বছরে বারংবার বিদেশ সফরে গিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী৷ তাই ওঁনার উচিত এতদিনের বিদেশ সফর নিয়ে শ্বেতপত্র প্রকাশ করা। উনি যতগুলো বিদেশ সফর করেছেন তাতে পশ্চিম বাংলায় কোনও শিল্প আসেনি। শুধু অর্থের ধ্বংস্ব হয়েছে৷’’

আরও পড়ুন: ২৪ ঘণ্টার মধ্যে জোড়া ‘পাক বধ’ ভারতের

এরপরই মমতার দলের এক সময়ের নম্বর টু প্রশ্ন তুলেছেন, ‘‘আগে মমতার বলা উচিত কোন বিদেশ সফর থেকে রাজ্যে কি শিল্প এসেছে ? তারপর অন্য বিদেশ সফরে উনি যাত্রা করুন।’’ চীনে কেনই বা যাচ্ছিলেন এবং কেনই বা গেলেন না তা নিয়েও কটাক্ষ করেছেন৷ বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের ‘এনকাউন্টার’ মন্তব্য নিয়ে ইতিমধ্যে রাজনৈতিক বিতর্ক তৈরি হলেও তার পাশে দাঁড়িয়েছেন মুকুল৷ তাঁর কথায়, ‘‘দিলীপবাবু বা সায়ন্তন ভট্টাচার্যের বক্তব্যের অপব্যাখ্যা করা হচ্ছে?’’

শ্যামাপ্রাসাদ মুখোপাধ্যায়কে নিয়ে রাজ্যসরকারের অনুষ্ঠান সম্পর্কেও তীব্র কটাক্ষ করে বলেন, ‘দেরিতে হলেও রাজ্য সরকারের বোধোদয় হয়েছে।’’ এদিন মুকুলবাবু সাংবাদিকদের সাফ জানিয়েদেন, তৃনমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে গনতন্ত্র রক্ষায় অন্য যে কোন দল থেকে ভারতীয় জনতা পার্টিতে কেউ আসতে চাইলে তাকে স্বাগত জানানো হবে৷ যদিও মুখ্যমন্ত্রীর বিদেশ সফর সম্পর্কে মুকুলবাবুর অভিযোগের পাল্টা কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি শাসক শিবির থেকে৷

আরও পড়ুন: বাগুইআটিতে মহিলাকে শ্লীলতাহানির অভিযোগে গ্রেফতার চিত্র পরিচালক

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।