কলকাতা: মহাকাশে ক্ষেপনাস্ত্র পাঠিয়ে কৃত্রিম উপগ্রহ ধ্বংস করে নজির তৈরি করেছে ভারত৷ আমেরিকা, রাশিয়া ও চিনের পর ভারত চতুর্থ দেশ হিসাবে এই যোগ্যতা অর্জন করেছে৷ কিন্তু মোদী বিরোধীতা করতে গিয়ে ‘মিশন শক্তি’র যৌক্তিকতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ এই নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁকে নিয়ে ট্রোলড করা হল৷

মুখ্যমন্ত্রী মমতার অভিযোগ, প্রধানমন্ত্রী টিভিতে মিশন শক্তির সফলতার কথা জানিয়ে নির্বাচনী বিধি ভঙ্গ করেছেন৷ বলেন, ‘‘বিজ্ঞানীরা এই ঘোষণা করতে পারত৷ এটা তাদের কৃতিত্ব৷’’ এরপরই তাঁর সংযোজন, অ্যান্টি স্যাটেলাইট কেবলমাত্র একটি স্যাটেলাইট ধ্বংস করেছে৷ সংবাদসংস্থা এএনআই মমতাকে উদ্বৃত করে লিখেছে, ‘‘এটার কোনও প্রয়োজন ছিল না৷ অনেকদিন ধরেই স্যাটেলাইটটি ওখানে ছিল৷’’

নির্বাচনের আগে বিজ্ঞানীদের কৃতিত্বের ভাগ নিয়ে আত্মপ্রচারে মোদী ব্যস্ত বলেই উল্লেখ করেছেন মমতা৷ ট্যুইটারে তীব্র ভাষায় মোদীর কড়া সমালোচনা করে তৃণমূল নেত্রী বলেন, মহাকাশ গবেষণা ধারাবাহিক প্রক্রিয়া। বহু বছর ধরেই ভারতের মহাকাশ গবেষণা আন্তর্জাতিক মানের। তবে বরাবরের মতো সব কৃতিত্ব নিতে চেয়েছেন মোদী। আসল কৃতিত্ব বিজ্ঞানী-গবেষকদের। এই ঘোষণা মোদীর চূড়ান্ত নাটকীয়তার উদাহরণ। ভোটের আগে আত্মপ্রচারে ব্যস্ত মোদী। নির্বাচনের সময় রাজনৈতিক ফায়দা তুলতেই মোদীর এই ঘোষণা বলে দাবি মমতার।