কলকাতা: সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন ও ‌এনআরসি নিয়ে শুরু থেকেই কেন্দ্র-বিরোধিতায় সরব তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এনআরসি ও নাগরিকত্ব আইন বাতিলের দাবিতে লাগাতার আন্দোলনের ডাক দিয়েছেন তৃণমূল সুপ্রিমো। কেরল ও পঞ্জাবের মতোই এরাজ্যেও বিধানসভায় নাগরিকত্ব আইন বিরোধী প্রস্তাব পাশ করানোর কথাও জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এবার দলীয় কর্মীদের এনআরসি ও নাগরিকত্ব আইনের বিরোধিতায় বাড়ি-বাড়ি ঘুরে প্রচারের নির্দেশ দিলেন তৃণমূলনেত্রী।

শুক্রবার দলের শীর্ষস্থানীয় নেতাদের নিয়ে একটি সভা করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই সভাতেই এই নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। একইসঙ্গে কেন্দ্রীয় আইনের বিরোধিতায় একগুচ্ছ কর্মসূচি নেওয়ারও নির্দেশ দিয়েছেন দলের নেতা-কর্মীদের। সিএএ ও এনআরসির প্রতিবাদে তৃণমূলনেত্রী নিজেও তিনটি সভা করবেন বলে জানা গিয়েছে।

এনআরসি ও নাগরিকত্ব আইনের জেরে সাধারণ মানুষের কী ধরনের সমস্যা হতে পারে এতদিন তা মিছিল, মিটিং-এ বলে এসেছেন তৃণমূলনেত্রী। এবার সেই বার্তাই সাধারণ মানুষের বাড়ি-বাড়ি গিয়ে বোঝাতে নির্দেশ দিয়েছেন দলের নেতা-কর্মীদের। একইসঙ্গে সাম্প্রতিক রাজনৈতিক পরিস্থিতির কথা বিচার করে দলকে আরও আন্দোলনমুখী করে তোলারও নির্দেশ দিয়েছেন তৃণমূলনেত্রী।

তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় জানিয়েছেন, আগামী ৮ ও ৯ ফেব্রুয়ারি দলের জনপ্রতিনিধিরা তাঁদের তফসিলি এলাকায় গিয়ে বাড়ি বাড়ি যাবেন। বাড়ি বাড়ি ঘুরে সিএএ ও এনআরসির ফলে মানুষের ব্যাপক সমস্যার দিক গুলি নিয়ে ব্যাখ্যা করবেন।

নাগরিকত্ব আইন ও এনআরসি নিয়ে কেন্দ্র-বিরোধিতায় সামিল কংগ্রেস, তৃণমূল, বাম-সহ কেন্দ্র বিরোধী প্রায় সব রাজনৈতিক দল। ইতিমধ্যেই দেশের মধ্যে প্রথম রাজ্য হিসেবে সিএএ-র বৈধতাকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টে মামলা করেছে বামশাসিত কেরল। একইসঙ্গে কেরলে এনপিআর-এর কাজও বন্ধ রেখেছেন মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন। এমনকী সরকারি কর্মীদের কেউ এনপিআর-এর কাজ নিয়ে এগোলে তাঁর বিরুদ্ধে ডিসিপ্লিনারি অ্যাকশন নেওয়ারও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন বিজয়ন। কেরল বিধানসভায় পাশ করিয়েছেন নাগরিকত্ব আইন বিরোধী প্রস্তাব। কেরলের পরেই রাজ্য বিধানসভায় সিএএ বিরোধী প্রস্তাব পাশ করিয়েছেন পঞ্জাবের ক্যাপ্টেন অমরিন্দার সিংয়ের নেতৃত্বাধীন কংগ্রেস সরকার।

কেরল, পঞ্জাবের মতোই পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভাতেও সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন বিরোধী প্রস্তাব পাশ করানো হবে বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আগামী ২৭ জানুয়ারি বিধানসভায় সিএএ বিরোধী প্রস্তাব পাশ করানো হবে বলে জানিয়েছেন পরিষদীয় মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

পপ্রশ্ন অনেক: একাদশ পর্ব

লকডাউনে গৃহবন্দি শিশুরা। অভিভাবকদের জন্য টিপস দিচ্ছেন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ।