স্টাফ রিপোর্টার, মালদহ: যে নরেন্দ্র মোদীর কোমরে দড়ি পরাবে বলেছিল, সেই মোদীরই শরণাপন্ন হতে হচ্ছে তাঁকে৷ রাজ্যের মুখ্য়মন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দিল্লি সফর নিয়ে এভাবেই কটাক্ষ করলেন বিজেপি নেতা জয়প্রকাশ মজুমদার৷ তাঁর দাবি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় জানেন রাজীব কুমার কোথায় লুকিয়ে আছে। কি তথ্য তার কাছে আছে যে রাজীব কুমারকে বাঁচাতে তৃণমূল কংগ্রেস ও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তৎপর হয়ে উঠেছে, এটাই খুঁজে বের করতে হবে৷

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর জন্মদিনে মালদহ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে স্বচ্ছ ভারত ও ফল বিতরনী অনুষ্ঠানে যান রাজ্য বিজেপি সহ সভাপতি জয়প্রকাশ মজুমদার। তিনি আরও বলেন এনআরসি নিয়ে মানুষকে ভুল বোঝাচ্ছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কোন সাবেকি হিন্দু বা কোন সাবেকি মুসলমানের নাম এনআরসিতে বাদ যাবেনা। সিপিএম যাদের অনুপ্রবেশ করিয়ে ভোটব্যাঙ্ক বানাচ্ছে তাদের নাম বাদ যাবে বলেও এদিন সতর্ক করেন এই বিজেপি নেতা৷

জয়প্রকাশ মজুমদার বলেন মালদহের মত সীমান্তবর্তী জেলায় যারা কয়েক পুরুষ ধরে বসবাস করছে, তাদের উত্তেজিত করা হচ্ছে। জয়প্রকাশের অভিযোগ, মালদহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে বিল্ডিং হয়েছে, টাকা এসেছে, সেই টাকা লুটও হয়েছে। যারা ক্ষমতায় ছিল কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরী, বাবলা সরকারের মত স্থানীয় নেতারাই এই টাকা লুঠ করেছে বলে অভিযোগ তাঁর৷ তিনি বলেন ২৫ শতাংশ টাকা এখানে থেকেছে আর বাকি টাকা হরিশ চ্যাটার্জি রোডে গিয়েছে।