কলকাতা:  প্রাণের পুজোতে মেতে উঠেছেন বাঙালি। আট থেকে আশি সবাই শারদোৎসবে মেতে উঠেছেন। যদিও মহালয়ার আগে থেকে দুর্গাপুজো শুরু করে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। একাধিক জায়গাতে উদ্বোধন করে দিয়ে এবারের শারদোৎসবের সূচনা করে দেন।

গোটা বাঙালি যখন প্যান্ডল হপিং করতে ব্যস্ত তখন বাড়িতে বসেই সমস্ত দিকে নজর রাখছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। উদ্বোধন সেরে পঞ্চমী থেকে দশমী পর্যন্ত কালীঘাটের বাড়িতেই রয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ৩০বি, হরিশ চ্যাটার্জি স্ট্রিটের টালিচালার বাড়িতে বসেই আপাতত গোটা রাজ্যের পরিস্থিতির দিকে নজর রাখছেন মুখ্যমন্ত্রী।

উল্লেখ্য, পুজো নিয়ে এক সভায় গত কয়েকদিন আগেই মুখ্যমন্ত্রী বলেন পুজোর সময় লাল বাতি নিয়ে ঘোরা পছন্দ হয় না। তাতে অন্য মানুষের অসুবিধা হয়। আর তাই অন্যের অসুবিধা না করে পুজো কটা দিন বাড়িতেই তিনি থাকতে বেশি ভালোবাসেন বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর সেই মতো পুজোর কটা দিন বাড়ি থেকে গোটা বাংলার দিকে নজর রাখছেন মমতাময়ী।

শুধু তিনি একা নন, উৎসবের আয়োজনে লক্ষ-কোটি মানুষের সমাগমের মাঝে কোনও অপ্রীতিকর ঘটনা যাতে না ঘটে, তার জন্য দলের সব বিধায়ক-মন্ত্রী এবং সাংসদদের নিজের নিজের এলাকায় থাকার নির্দেশ আগেই দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। গোটা বিষয়টি দেখভাল করতে কালীঘাটের বাড়িতে তৈরি হয়েছে চিফ মিনিস্টার্স অফিস (সিএমও)। সিএমও’র কয়েকজন আধিকারিকও পালা করে ডিউটি করবেন সেখানে। উৎসব পর্ব শেষে একাদশীর দিন কালীঘাটের বাড়িতেই ভক্ত, অনুগামী, দলের নেতা-মন্ত্রী এবং সাধারণ মানুষের সঙ্গে বিজয়া পর্বে মিলিত হবেন মুখ্যমন্ত্রী।