ফাইল ছবি

কলকাতা : ব্রিগেডে ৭ মার্চ যখন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi)রাজ্যে ক্ষমতায় আসার জন্য জনসভা করছেন, ঠিক সেই দিনই ৭ মার্চ শিলিগুড়িতে (Siliguri) মহিলাদের নিয়ে পদযাত্রা করবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। বৃহস্পতিবার তৃণমূল ভবনে সাংবাদিক সম্মেলন করে এই কথা জানান রাজ্যের মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই পদযাত্রা দার্জিলিং মোড় থেকে শুরু হয়ে ভেনাস মোড় পর্যন্ত যাবে। তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই মিছিলের পুরোভাগে থাকবেন। চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য (Chindrima Bhattacharya) জানান, “গ্যাস ও পেট্রোপণ্যের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদেই এই পদযাত্রার ডাক দেওয়া হয়েছে।” এদিন চন্দ্রিমাদেবী আরও জানান, “৮ মার্চ নারী দিবসের দিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কলকাতার কলেজ স্কোয়ার থেকে ধর্মতলা পদযাত্রা করবেন। সেখানেও মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে দলের মহিলা শাখার সদস্যরা উপস্থিত থাকবেন।”

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ৭ মার্চ উত্তরবঙ্গের পদযাত্রা আসলে ব্রিগেড নরেন্দ্র মোদীর জনসভা থেকে মানুষের নজর ঘোরানোর প্রচেষ্টা বলে বিজেপি-র দাবি। তবে তৃণমূলের তরফে দাবি করা হয়েছে, সারা দেশ জুড়ে যে ভাবে জ্বালানির দাম বাড়ছে তাতে সাধারণ মানুষের প্রাণান্তকর অবস্থা। অথচ কেন্দ্রের সরকার নির্বিকার। তাই তৃণমূল সাধারণ মানুষের স্বার্থের কথা মাথায় রেখেই এই পদযাত্রার আয়োজন করেছে। যার নেতৃত্ব দেবেন স্বয়ং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

উত্তরবঙ্গে গত ২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলের ফল খুবই খারাপ হয়েছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় করোনা-র পর প্রথম উত্তরবঙ্গে জেলা সফর করতে যান। তাছাড়াও সম্প্রতি উত্তরবঙ্গে গিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সভা করে বলেছেন, এবার আর তৃণমূলকে ফিরিয়ে দেবেন না। এইতো করোনা গেলো। কাউকে দেখেছেন আপনাদের পাশে দাঁড়াতে? এরাই তো লোকসভা নির্বাচনে প্রতিশ্রুতি দিয়ে ভোট নিয়ে এখন পালিয়ে গেছে।

তবে লোকসভা নির্বাচনের পর থেকে এখন পর্যন্ত তৃণমূলের দিকে উত্তরবঙ্গের মানুষ সেই অর্থে ফিরে তাকায়নি। এই দাবি বিজেপি-র। এরই মধ্যে পাহাড়ে আবার বিমল গুরুংকে প্রবেশের অনুমতি দিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আবার নিজের জমি হারাচ্ছেন বলে রাজনৈতিক মহলের মত। পাহাড়ের বিজেপি নেতা মনোজ দেওয়ান বলেছেন, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পাহাড়ের ভালো করেননি। বিমল গুরুং পাহাড়ের ক্ষতি করেছেন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আবার সেই বিমল গুরুংকে পাহাড়ে প্রবেশের অনুমতি দিয়ে ৭৯টি মামলা তুলে নেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু করেছেন তৃণমূল সুপ্রিমো। রাজনৈতিক মহলের মতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৭ মার্চ উত্তরবঙ্গে পদযাত্রা করে নিজের ফিরে পাওয়া জমি খুঁজতে চাইছেন।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।