স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: চলতি মাসের ২১ তারিখ উত্তরবঙ্গ সফরে যাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। লোকসভা ভোটের পর এই প্রথম তিনি উত্তরবঙ্গে যাচ্ছেন। প্রশাসনিক সূত্রে খবর, আগামী ২১ – ২৫ অক্টোবর আলিপুরদুয়ার, জলপাইগুড়ি এবং দার্জিলিং সফর করবেন মুখ্যমন্ত্রী। পাশাপাশি, তৃণমূল কংগ্রেসের দলীয় নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করতে পারেন তিনি।

জানা গিয়েছে, ২১ তারিখ আলিপুরদুয়ারে প্রশাসনিক বৈঠক করবেন তিনি। ২২ অক্টোবর উত্তরকন্যায় দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি, কোচবিহারের বেশকিছু আধিকারিকদের নিয়ে বৈঠকের কর্মসূচি রয়েছে মুখ্যমন্ত্রীর। ওই দিনেই দুপুরে কার্শিয়াংয়ের উদ্দেশ্যে রওনা হবেন তিনি। ২৩ তারিখ কার্শিয়াং প্রশাসনিক কর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করে ২৪ অক্টোবর কলকাতার উদ্দেশ্যে রওনা দেবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তেমন কোনও গুরুত্বপূর্ণ কর্মসূচি না-এসে পড়লে মুখ্যমন্ত্রী এই সফরে পাহাড়েও যেতে পারেন।

ভোটের জন্য প্রায় ৬ মাস বিভিন্ন প্রকল্পের কাজ বন্ধ রাখতে হয়েছিল। তাই ভোটের পর তিনি টিম-নবান্নকে সঙ্গে নিয়ে একের পর জেলাসফর শুরু করে দিয়েছেন।পুজোর আগেই উত্তর ২৪ পরগনা, বর্ধমান এবং পশ্চিম মেদিনীপুর জেলায় প্রশাসনিক বৈঠক করে ফেলেছেন মমতা। তবে তাঁর এই সফরের রাজনৈতিক তাৎপর্যও যথেষ্ট বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

লোকসভা ভোটে উত্তরবঙ্গের বিজেপির কাছে সাফ হয়ে গিয়েছে তৃণমূল৷ ৮টি আসনের মধ্যে সাতটিতেই জিতেছে গেরুয়া শিবির। তারপর থেকে আর উত্তরবঙ্গে পা রাখেননি মুখ্যমন্ত্রী৷ এমনকি ভোট পরবর্তী পরিস্থিতিতে উত্তরবঙ্গে বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হলেও যাননি মমতা।

তৃণমূলের একাংশের বক্তব্য, এনআরসি নিয়ে উত্তরবঙ্গে যেভাবে আতঙ্ক ছড়াচ্ছে তাতে আলিপুরদুয়ার-কোচবিহারের বহু মানুষ ক্রমশ ভীত হয়ে পড়ছে। মুখ্যমন্ত্রী সেখানকার মানুষকে এব্যাপারে ভরসা যোগাতে যাচ্ছেন৷