কলকাতাঃ  ভিক্টোরিয়া-কাণ্ডের পর প্রথমবার রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়ের মুখোমুখি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজভবনে চা-চক্রে যোগ দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। একাধিক ইস্যুতে রাজ্যপালের সঙ্গে মতানৈক্য দেখা যায় রাজ্যপালের।

কিন্তু মঙ্গলবার সৌজন্য সাক্ষাতের উদ্দেশ্যেই রাজভবনে যান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। জনা যায়, বিকেল ৪টে ৫ থেকে এই অনুষ্ঠান শুরু হয়। প্রজাতন্ত্র দিবসের বিকেলে চা-চক্রে সমাজের বিশিষ্টজন, রাজনীতিবিদদের আমন্ত্রণ জানান রাজ্যপাল। সেখানে থাকেন মুখ্যমন্ত্রীও।

সেই মতোই রাজভবনে পৌঁছন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বেশ কিছুক্ষণ সেখানে থাকেন। বিশিষ্টরাও উপস্থিত ছিলেন। সবার সঙ্গে আলাপচারিতা সারেন মুখ্যমন্ত্রী।

ছিলেন মুখ্যসচিব, স্বরাষ্ট্রসচিব, রাজ্যপুলিশের ডিজি-সহ শীর্ষ প্রশাসনিক কর্তারা। এর আগে সকালে রেড রোডের কুচকাওয়াজেও দেখা হয়েছিল মমতা-ধনকড়ের।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

জীবে প্রেম কি আদৌ থাকছে? কথা বলবেন বন্যপ্রাণ বিশেষজ্ঞ অর্ক সরকার I।