কলকাতা: বিরোধ সামনে এসেছে একাধিকবার। কিন্তু এটা কঠিন সময়। তাই একে অপরের পাশে দাঁড়াতেই পছন্দ করছেন বিরোধীরা।

সব বিরোধ ভুলে করোনা মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর তৈরি করা তহবিলে ৫ লক্ষ টাকা দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। একইসঙ্গে রাজ্যের জন্যও পাঁচ লক্ষ টাকা দিয়েছেন তিনি।

মঙ্গলবার ট্যুইট করে একথা জানিয়েছেন মমতা। তিনি আরও জানিয়েছেন যে মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে কোনও বেতন নেন না তিনি। বিধায়ক হিসেবেও নেননি। এমনকি সাত বারের সাংসদ হওয়া সত্বেও পেনশন গ্রহণ করেন না। ছবি এঁকে বা বই লিখে তাঁর যা আয় হয়, সেটাই তাঁর উপার্জন বলে জানিয়েছেন। এমন কথা অবশ্য আগেও বলেছেন মমতা।

করোনা মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর পিএম কেয়ার ফান্ডে দেশবাসীকে মুক্ত হস্তে দান করার আবেদন জানিয়েছেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী। নরেন্দ্র মোদীর ডাকে সাড়া দিয়ে ইতিমধ্যেই সেই ফান্ডে ৫০০ কোটি টাকা দিয়েছে টাটা ট্রাস্ট। এরই পাশাপাশি সেই ফান্ডে ২৫ কোটি টাকা দিয়েছেন অভিনেতা অক্ষয় কুমার।

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের কারণে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী একটি চ্যারিটেবল ফান্ডের গঠন করেছেন। নাম পিএম কেয়ার্স। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ওই ট্রাস্টের চেয়ারম্যান, আর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, প্রতিরক্ষামন্ত্রী এবং অন্যান্য মন্ত্রীরা এই ফান্ডের সাথে সরাসরি যুক্ত রয়েছেন।

করোনা মোকাবিলায় একাধিক পদক্ষেপ করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। পাশাপাশি, রাজ্যগুলিও কোমর বেঁধেছে। শনিবার করোনা মোকাবিলায় বিশেষ ফান্ড তৈরির কথা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। মারন এই ভাইরাসে আক্রান্তদের চিকিৎসা ও প্রয়োজনীয় পরিকাঠামো গড়ে তুলতে পিএম কেয়ার ফান্ডে দেশবাসীকে অর্থ সাহায্য করতে আবেদন জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।