মালদহ: হেরেও হার মানছেন না। গণতন্ত্রে মানুষই শেষ কথা। সেটা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মানতে রাজি নন। মানুষের আশীর্বাদে বিজেপি জিতেছে।অথচ যেখানে উনারা জিতেছেন সেখানে ওনাদের মিছিল চলবে। ওটা শান্তি মিছিল। আমাদের মিছিল করতে দেবেন না। ১৪৪ ধারা জারি করা হবে। কেন এটা হবে? আমরা তার কোনও নিয়ম মানব না। এমনটাই জানালেন রাজ্য বিজেপির সভাপতি তথা সাংসদ দিলীপ ঘোষ৷

গঙ্গারামপুরে অনুষ্ঠান শেষ করে কলকাতায় যাওয়ার পথে মালদহ টাউন স্টেশনে তিনি বলেন, কোন ফরমান মানবো না। উনি যদি ভাবেন পুলিশ দিয়ে পেটাবেন। তাহলে রোজ এরকম পরিস্থিতি হবে। পুলিশকে বলির পাঠা করে বিজেপির সামনে ঠেলে দিচ্ছে। ডিজে করে মিছিল হচ্ছে, দলের ক্যাডাররাই ওনার কথা মানেন না। আমরা কেন মানবো। পুলিশকে ঝাড়ুর মতো ব্যবহার করছে। পুলিশ অফিসাররা এমন মুখ করে দাঁড়িয়ে থাকছে যে আমার কষ্ট হচ্ছে। অভিনন্দন মিছিল চলবে। আমাদের প্রতিষ্ঠাতা বলেছেন অন্যায় হলে প্রতিবাদ কর, প্রতিরোধ কর, প্রতিশোধ নাও। এতদিন প্রথম দুটো করেছি এবার শেষেটা করব।

বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের নেতৃত্বে গঙ্গারামপুর ও বালুরঘাটে নাগরিক অভিনন্দন যাত্রা কর্মসূচি পালিত হয়। এদিন দিলীপ ঘোষ বুনিয়াদপুরে পৌঁছলে তাকে সম্বর্ধনা দেন বিজেপি কর্মী সমর্থকেরা৷ এরপর তারা মিছিল করার চেষ্টা করলে পুলিশ তাদের বাধা দেয়৷ জানা যায়, দিলীপ ঘোষের নেতৃত্বে বিজেপি কর্মী সমর্থকরা গঙ্গারামপুর শহরের কালিতলা মোড় থেকে গঙ্গারামপুরের চৌরঙ্গী মোড়ের দিকে পায়ে হেটে রওনা দেন৷ সেই সময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত পুলিশ আধিকারিকরা তাদের বাধা দেয়৷ তখন পুলিশের সঙ্গে বিজেপি কর্মীদের বচসা শুরু হয়। এরপর বিজেপি কর্মীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে জুতো ও ইঁট ছোড়ে৷ পুলিশ লাঠিচার্জ করলে উত্তেজিত হয়ে উঠে বিজেপি কর্মী সমর্থকরা৷