স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: বাংলায় বিজেপির ভাল ফলের পেছনে তৃণমূলনেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়েরই হাত রয়েছে৷ বুথ ফেরৎ সমীক্ষাগুলি দেখার পর বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্র৷

এখনও পর্যন্ত প্রকাশিত সমস্ত বুথ ফেরত সমীক্ষাই জানাচ্ছে ইউপিএ জোটের তুলনায় বেশ কিছুটা এগিয়ে রয়েছে এনডিএ জোট। এমনকি বাংলাতেও শক্তিবৃদ্ধি হচ্ছে বিজেপির।টাইমস নাও-ভিএমআর-এর বুথ ফেরত সমীক্ষায় দেখা যাচ্ছে এ রাজ্যে তৃণমূল পেতে পারে ২৮টি আসন, বিজেপি পেতে পারে ১১টি আসন, কংগ্রেস পেতে পারে ২টি আসন ও অন্যান্যরা পেতে পারে ১টি আসন। রিপাবলিক টিভির সমীক্ষাতে এই রাজ্যে তৃণমূল পেতে পারে ২৯টি আসন, বিজেপি পেতে পারে ১১টি আসন ও কংগ্রেস পেতে পারে ২টি আসন।

এবিপি-এসি নিয়েলসেনের বুথ ফেরত সমীক্ষায় দেখা যাচ্ছে এ রাজ্যে তৃণমূল পেতে পারে ২৪টি আসন, বিজেপি পেতে পারে ১৬টি আসন, কংগ্রেস পেতে পারে ২টি আসন। বামেদের ভাঁড়ার শূন্য।

জন-কী-বাত ও ইন্ডিয়া টুডে’র সমীক্ষায় তৃণমূলের আরও আসন কমার ইঙ্গিত দিচ্ছে৷ জন-কী-বাত জানাচ্ছে তৃণমূল পেতে পারে ১৭টি আসন, বিজেপি পেতে পারে ২২টি আসন। অর্থাৎ রাজ্যে বিজেপি টপকে যেতে পারে তৃণমূলকে। অন্যদিকে কংগ্রেস পেতে পারে ৩টি আসন। অনেকটা একই ছবি দেখা গিয়েছে ইন্ডিয়া টুডে’র সমীক্ষাতে। এই সমীক্ষায় দেখা যাচ্ছে তৃণমূল পেতে পারে ১৯-২২টি আসন। বিজেপি পেতে পারে ১৯-২৩টি আসন। কংগ্রেস পেতে পারে ১টি আসন।

এব্যাপারে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্র বলেন, “আমি এখনও বিশ্বাস করি কংগ্রেস এরাজ্যে চারটি আসনই পাবে৷ বিভিন্ন বুথফেরত সমীক্ষায় দেখাচ্ছে উত্তর মালদহে মৌসম নূর জিতছে৷ কিন্তু আমি কোনও অংকেই মেলাতে পারছি না যে মৌসম নূর জিতবে৷”

বাংলায় গেরুয়া ঝড়ের ইঙ্গিত নিয়ে তিনি বলেন, “বিজেপি এরাজ্যে ভাল ফল করবে এটা জানাই ছিল৷ কারণ তাদের ভাল ফলের জন্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাত রয়েছে৷”

বুথ ফেরৎ সমীক্ষা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও৷ তিনি ট্যুইটারে লিখেছেন, করে মমতা বলেন, “আমি এই এক্সিট পোলকে বিশ্বাস করি না। এটা একটা চক্রান্ত, যার মাধ্যমে হাজার হাজার এভিএম মেশিনে কারচুপি করার কিংবা ইভিএম মেশিনকে বদল করার পরিকল্পনা করা হচ্ছে। আমি সব বিরোধী দলগুলোর কাছে আবেদন করছি, যাতে সবাই একজোট থাকে, শক্ত থাকে। আমরা এক সঙ্গে এই লড়াই লড়ব।”