- Advertisement -

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: কার্যত শীতঘুমে চলে যাওয়া নারদ মামলা ফের একবার খবরের শিরোনামে৷ সৌজন্যে কলকাতা হাইকোর্ট৷২০১৬তে প্রকাশ্যে আসা নারদ ফুটেজ নিয়ে গত শুক্রবার আদালত যে রায় দিয়েছে তাতে বেশ বিপাকে পড়েছে শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেস৷ ইতিমধ্যেই সিবিআই তদন্তের থেকে রেহাই পেতে সুপ্রিম কোর্টে মামলা করেছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দল৷

আরও পড়ুন: আট লক্ষ কর্মী-সমর্থক নিয়ে নবান্ন অভিযান করবে বামেরা!

এরমধ্যে সিজিও কমপ্লেক্সের সামনে দাঁড়িয়ে ফের একদফা বিক্ষোভ দেখাল বামেরা৷ তদন্তের নামে কেন্দ্র-রাজ্যের বোঝাপড়া হলে ফল ভালো হবে না বলে প্রচ্ছন্ন হুমকি দিয়ে রাখলেন সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র৷মণিপুরে সরকার গঠনে বিজেপিকে সমর্থন করেছে তৃণমূলের একমাত্র বিধায়ক৷এদিন সেই বিষয়টিও হাতিয়ার করেন বামফ্রন্টের চেয়ারম্যান তথা বর্ষীয়ান সিপিএম নেতা বিমান বসু৷

- Advertisement -

সোমবার শুরুতেই কেন্দ্র ও রাজ্যের বিরুদ্ধে একযোগে সুর সপ্তমে তোলেন বাম নেতারা৷ সারদা থেকে রোজ ভ্যালি চিটফান্ড সহ হালের নারদা নিয়েও সিবিআই তদন্ত গুলিয়ে দিতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেন সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক৷ সূর্য মিশ্র এদিন বলেন, ‘‘চিটফান্ড কাণ্ডে তদন্তের নামে অভিযুক্তদের আড়াল করেছে সিবিআই৷ আগামী দিনেও নারদ মামলা নিয়ে কতটা কি করবে তা নিয়ে আশঙ্কা রয়েছে৷’’ এর পাশাপাশি একধাপ এগিয়ে রাজ্যের প্রাক্তন বিরোধী দলনেতা প্রশ্ন তোলেন,‘‘ চুনোপুঁটিদের ধরে কিছু হবে না৷ যদি মুখ্যমন্ত্রী থাকার সময় ইয়েদুরাপ্পাকে জেলে যেতে হয়, জয়ললিতাকেও জেলে রাত কাটাতে হয় তাহলে এই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী দুর্নীতি করেও কেন পার পেয়ে যাবে?’’ কিসের ভয়ে কেন্দ্র এখনও মমতাকে সারদা বা নারদ মামলায় জেরা করছে না এদিন তা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন সূর্য মিশ্র৷

আরও পড়ুন: নবান্ন অভিযানে পুলিশের সঙ্গে হাতাহাতি বিজেপি কর্মীদের

সারদা সহ একাধিক চিটফান্ড সংস্থা বাম আমলেই তৈরি হয়েছে ৷ অথচ রাজ্যে তৃণমূল সরকার ক্ষমতায় আসার কয়েক বছরের মধ্যে তা ফুলে ফেঁপে ওঠে৷ এদিন সেই বিষয় নিয়েও মন্তব্য করেন সূর্য মিশ্র৷ যদিও নিজেদের ব্যর্থতা ঢেকে তিনি বলেন, আমাদের সময়ই চিট ফান্ডের বাড়বাড়ন্ত যাতে না হয় আমাদের সরকারই প্রথম সেই উদ্যোগ নেয়৷‘‘এই ধরনের অর্থলগ্নি সংস্থার সঙ্গে যুক্ত একশোর কাছাকাছি অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছিল বাম সরকার৷এই বিষয়ে ২০১১তে বিধানসভায় একটি বিলও আনা হয়৷ তবে সেই সময় তাতে রাজ্যপাল সই না করায় আটকে যায়৷’’ পরবর্তী সময় তৃণমূল কংগ্রেস ক্ষমতায় এসে ক্ষমতায় এসে সেই বিলের সংশোধন করে ৷ ‘‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দল অভিযুক্তদের শাস্তি দিতে নয়, তাদের আড়াল করতেই এই বিলের সংশোধন করেছিলেন৷ এবং সেটি ভুল পদ্ধতিতে৷ এরফলেই রেহাই পেয়ে গিয়েছে একের পর এক অভিযুক্ত৷’’

এদিন সূর্য মিশ্র ছাড়াও বিজেপির সঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেসের আঁতাঁত রয়েছে বলেও সরব হন বামফ্রন্টের চেয়ারম্যান বিমান বসু৷ তিনি বলেন, মণিপুরে যাতে বিজেপি সরকার গঠন করতে পারে সেই কারণে তৃণমূলের একমাত্র বিধায়ক আজ আস্থা ভোটে বিজেপির পক্ষে রায় দিয়েছে৷ এরমানে এটাই প্রমাণিত হয় বিজেপিকে বার্তা দিচ্ছে তৃণমূল৷’’ আগামী দিনে বিজেপির হাত ধরতে তৃণমূলের যাতে কোনও সমস্যা না হয় সেই কারণেই এই বার্তা বলেও এদিন ফের একবার সরব হন বর্ষীয়ান এই বাম নেতা৷

এদিকে এদিনের সভার অনুমতি না মেলায় বিধাননগর পুলিশ কমিশনারেটের বিরুদ্ধেও তোপ দাগেন বাম নেতারা৷ বলেন ইচ্ছাকরে সভায় মঞ্চ বাঁধার অনুমতি দেওয়া হয়নি৷ সভায় মাইক ব্যবহার করতেও বাঁধা দিয়েছে পুলিশ৷ এই সব করে বামেদের আন্দোলনকে রোখা যাবে না বলে সভায় মন্তব্য করেন সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক সূর্য কান্ত মিশ্র৷ এছাড়াও এদিনের বিক্ষোভ কর্মসূচিতে সিপিএমের রাজ্য কমিটির সদস্য রবীন দেব, গৌতম দেবের মতো নেতারাও উপস্থিত ছিলেন৷ আগামী মাসেই নবান্ন অভিযান করবে বামেরা৷ এদিন ফের একবার সেই কথাও স্মরণ করিয়ে দেন সিপিএমের রাজ্যসম্পাদক৷