ফাইল ছবি

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: CBSE’র একাদশ শ্রেণির রাষ্ট্রবিজ্ঞানের সিলেবাস থেকে বাদ দেওয়া হল ধর্মনিরপেক্ষতা, দেশের যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামো, ভারতের খাদ্য নিরাপত্তা, নাগরিকত্বের মতো গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায়। তা নিয়ে তীব্র প্রতিক্রিয়া জানালেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

মুখ্যমন্ত্রী টুইট করে লিখেছেন, “নাগরিকত্ব, যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামো, ধর্মনিরপেক্ষতা, গণতান্ত্রিক অধিকার, খাদ্য সুরক্ষা, দেশভাগের মতো বিষয়কে CBSE’র সিলেবাস কমানোর নামে পাঠ্যক্রম থেকে বাদ দিতে চাইছে কেন্দ্র। এটা জেনে আমি স্তম্ভিত। আংরা এর তীব্র বিরোধিতা করছি। সেইসঙ্গে কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের কাজে আবেদন করছি যাতে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলি বাদ না দেওয়া হয়।”

করোনা ভাইরাস পরিস্থিতিতে মঙ্গলবারই পড়ুয়াদের উপর চাপ কমাতে সিলেবাস কাটছাঁট করার কথা জানিয়েছিলেন কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল। এরপরই ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণির পড়ুয়াদের জন্য পাঠ্যক্রমের ভার কমানোর কথা ঘোষণা করেছে CBSE। কিন্তু, যে সব অংশ বাদ দেওয়া হয়েছে তা নিয়ে বিতর্ক তুঙ্গে। বিরোধীরা এই সিদ্ধান্তের পেছনে গেরুয়া রাজনীতি রয়েছে বলে মনে করছে।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের টুইটের পরই সিবিএসই’র এই পদক্ষেপের তীব্র সমালোচনা করে বিবৃতি জারি করেছেন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ও। তাঁর কথায়, “সিবিএসই’র এই পদক্ষেপের তীব্র বিরোধিতা করছি।”

কড়া সমালোচনা করে তৃণমূলের রাজ্যসভার দলনেতা ডেরেক ও’ব্রায়েন ট্যুইটারে লিখেছেন, “এভাবে সিলেবাস কাটছাঁটের তীব্র বিরোধিতা করছি। আমাদের সংবিধান, গণতান্ত্রিক অধিকার এবং ইতিহাসকে ধ্বংস করতেই এরকম ভয়ঙ্কর পদক্ষেপ ৷”

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ