কলকাতা: সরাসরি ক্ষোভ প্রকাশ করলেন না৷ তবে স্পষ্ট বুঝিয়ে দিলেন যে খুশি নন তিনি৷ অসন্তোষ চেপে না রেখে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের গলায় অভিযোগের সুর, ‘সৌরভের উচিত ছিল অন্তত আমার সঙ্গে একবার আলোচনা করে নেওয়া৷’

নবান্নে রাজ্যের ক্রীড়া সংস্থাগুলির প্রতিনিধি ও ক্লাব কর্তাদের সঙ্গে বৈঠকের মাঝেই মুখ্যমন্ত্রী অসন্তোষ প্রকাশ করেন বিসিসিআই-এর সিদ্ধান্ত নিয়ে৷ করোনা ভাইরাস নিয়ে বিশ্বব্যাপী যে আতঙ্কের পরিবেশ তৈরি হয়েছে, ভারতেও তার ব্যতিক্রম হয়নি৷ সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে করোনা ভাইরাস নিয়ে নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে৷ কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রক জাতীয় ক্রীড়া সংস্থাগুিলকে যাবতীয় খেলাধুলোর আসর আপাতত স্তগিত রাখার পরামর্শ দিয়েছে৷

আরও পড়ুন: করোনা আক্রান্ত আর্সেনাল কোচ আর্তেতা

স্টেডিয়ামে দর্শক সমাগমে করোনা ভাইরাস সংক্রমেণর আশঙ্কা থাকায় বিসিসিআই-এর তরফে প্রাথমিকভাবে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল যে, ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকা ওয়ান ডে সিরিজের বাকি দু’টি ম্যাচ ফাঁকা গ্যালারিতে অয়োজন করা হবে৷ সিরিজের তৃতীয় তথা শেষ ওয়ান ডে ম্যাচ আয়োজন করার কথা ছিল ইডেনের৷

এমন সংকটজনক অবস্থায় কলকাতায় ম্যাচ আয়োজনের সিদ্ধান্ত নিলেও রাজ্য সরকারের সঙ্গে আলোচনা করেনি ভারতীয় বোর্ড৷ যদিও সিএবি’র তরফে সভাপতি অভিষেক ডালমিয়া এ বিষয়ে আলোচনা করেছিলেন মুখ্য সচিবের সঙ্গে৷ মুখ্যমন্ত্রী ভারতীয় বোর্ডের প্রতি নিজের আস্থা বজায় রেখেই বলেন যে, এমন পরিস্থিতিতে রাজ্যে যখন ম্যাচ আয়োজন করা হচ্ছে, তখন কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে একবার সরকারের সঙ্গে আলোচনা করতে পারত বোর্ড৷

আরও পড়ুন: BREAKING: করোনা আতঙ্কে পিছিয়ে গেল IPL, শুরু হবে ১৫ এপ্রিল থেকে

মুখ্যমন্ত্রীর মত, ভারতীয় বোর্ডের পরিকাঠামো আছে পরিস্থিতির সঙ্গে মোকাবিলা করার৷ তবে যেহেতু এমন পরিস্থিতিতে রাজ্যে খেলা আয়োজন করতে চাইছে, তাই সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে বোর্ডের একবার আলোচনা করা উচিত ছিল৷৷ তাঁর কথায়, ‘সৌরভদের সব ঠিক আছে৷ তবে একটু কথা বলে নেওয়া উচিত ছিল৷ অন্য কোনও বিষয় নয়, খেলাটা যখন কলকাতায় হচ্ছে, তখন কলকাতা পুলিশকে অন্তত জানানো দরকার ছিল৷ বোর্ডের প্রতি সম্মান জানিয়েই বলছি, এই পরিস্থিতিতে কলকাতায় ম্যাচ হবে, অথচ পুলিশ কমিশনার, মুখ্য সচিব, স্বরাষ্ট্র সচিব অথবা সরকারের কেই জানবে না?

মুখ্যমন্ত্রী আরও বলেন, ‘আমরা তো ম্যাচ বন্ধ করতে বলছি না৷ তাই বেল আপনারা সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর আমাদের জানাবেন! এর পর আমরা যদি না বলি, তখন কথা হবে৷ খেলাটা তো শুধু খেলোয়াড়দের জন্য নয়৷ দর্শকদের যদি কিছু হয়, তখন কে দেখবে? সুতরাং আমার মনে হয়, এ-প্রসঙ্গে আগে থেকে একটু কথা বলে নেওয়া উচিত ছিল৷’

আরও পড়ুন: BREAKING: করোনা আতঙ্কে পরিত্যক্ত ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকা ওয়ান ডে সিরিজ

যদিও মুখ্যমন্ত্রী যখন অভিযোগের আহুল তুলছেন বিসিসিআই-এর দিকে, ঠিক তখনই ভারতীয় বোর্ড সিরিজ বাতিল করার সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছে৷ তাই ইজেন ম্যাচ নিয়ে দুশ্চিন্তার কারণ রইল না মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের৷

স্বামীর সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে বস্ত্র ব্যবসাকে অন্যমাত্রা দিয়েছেন।'প্রশ্ন অনেকে'-এ মুখোমুখি দশভূজা স্বর্ণালী কাঞ্জিলাল I