স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: নোবেলজয়ী অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বালিগঞ্জের বাড়িতে গিয়ে তাঁর মা নির্মলা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে দেখা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বুধবার বিকাল ৫টা নাগাদ হিন্দুস্থান পার্কে নোবেলজয়ীর বাড়িতে পৌঁছন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন স্বরাষ্ট্র সচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতার পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মা। এ ছাড়াও ছিলেন রাজ্যের মন্ত্রী ইন্দ্রনীল সেন। মুখ্যমন্ত্রীর অনুরোধে অভিজিতের মা-কে একটি গানও গেয়ে শোনান ইন্দ্রনীল- “প্রাণ ভরিয়ে তৃষা হরিয়ে মোরে আরও আরও দাও প্রাণ।”

পরে অ্যাপার্টমেন্ট থেকে বেরোনোর সময় মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “গরিব মানুষকে নিয়ে আমরাও অনেক কাজ করেছি। স্বাস্থ্য সাথী, কন্যাশ্রী ইত্যাদি। এগুলো সব মানুষকে জানাতে হবে”। এর পরেই পাশে দাঁড়ানো নির্মলা দেবীকে উদ্দেশ করে মমতা বলেন, “মাসিমারও অনেক পরামর্শ রয়েছে। বিশেষ করে কৃষির ব্যাপারে ওনার আগ্রহ রয়েছে। আমি আলাপনকে বলেছি ওনার সঙ্গে সবিস্তারে কথা বলতে। তার পর মাসিমা ও তাঁর টিম যদি আমাদের সাহায্য করতে পারেন তা হলে ভাল কথা।” মুখ্যমন্ত্রীর কথায়, “অভিজিৎ আমাদের গর্ব। উনি বাংলাকে কী ভাবে সাহায্য করতে পারেন সে ব্যাপারে আমরা কথা বলব। ওনার সুবিধা মতো যদি সময় বের করতে পারেন তা হলে ভাল হয়।”

অমর্ত্য সেনের পর দ্বিতীয় বাঙালি হিসেবে অর্থনীতিতে এবছর নোবেল জিতেছেন অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়। স্ত্রী এস্থার ডুফলো ও আর অর্থনীতিবিদ মাইকেল ক্রেমারের সঙ্গে যুগ্মভাবে এবছর অর্থনীতিতে নোবেল পাচ্ছেন এমআইটি-র গবেষক। সোমবার নোবেল প্রাপক হিসেবে অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম ঘোষণা হয়। তারপরই অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়ের মা নির্মলাদেবীকে ফোন করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। বাংলাকে গর্বিত করার জন্য শুভেচ্ছা জানিয়েছিলেন অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্য়ায়কে।

এরপরই আজ নির্মলাদেবীর সঙ্গে দেখা করতে আসেন তিনি। রাজ্য সরকারের তরফ থেকে নির্মলা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাতে ফুল, মিষ্টি ও শুভেচ্ছাবার্তা তুলে দেন মুখ্যমন্ত্রী। চলতি মাসের শেষেই কলকাতায় আসার কথা রয়েছে নোবেলজয়ীর। অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায় বাড়িতে এলে, তাঁর সঙ্গে এসে দেখা করার ইচ্ছে নির্মলাদেবীর কাছে প্রকাশ করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

রাজ্য সরকারের তরফে নোবেলজয়ী অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়কে সংবর্ধনা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তিনি কলকাতায় এলে, কীভাবে কী সময় পাওয়া যায়, সেই নিয়েই তাঁর মায়ের সঙ্গে আজ কথা বলেন মুখ্যমন্ত্রী। নবান্নের একটি সূত্রের মতে, অভিজিৎকে বঙ্গরত্ন বা শিক্ষারত্ন পুরস্কার দেওয়া হতে পারে।