জলপাইগুড়ি: করোনাকালেই শারদোৎসব আসন্ন। তবে পুজোর সময় এবার আরও বেশি সতর্ক থাকতে হবে বলে বারবার পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। মঙ্গলবার প্রশাসনিক বৈঠকেও একই বার্তা দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিন আলিপুরদুয়ার ও জলপাইগুড়ি জেলার প্রশাসনিক কর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন মুখ্যমন্ত্রী। সেই বৈঠকেই তিনি জানান, দুর্গাপুজো আসছে বলেই করোনাকে কেউ অবহেলা করবেন না।

গোটা দেশ করোনার গ্রাসে। দেশের একাধিক রাজ্যের পাশাপাশি করোনা তাণ্ডব চালাচ্ছে এরাজ্যেও। বাংলায় প্রতিদিন ৩ হাজার বা তারও বেশি মানুষ নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন। পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃত্যুও। এই আবহেই আর কয়েক সপ্তাহ পরেই আসছে দুর্গাপুজো।

করোনাকালে নির্বিঘ্নে শারোদোৎসবের আয়োজন এবার প্রশাসনের কাছেও মস্ত চ্যালেঞ্জ। সংক্রমণ এড়াতে সবরকম ব্যবস্থা নিলেও রাজ্যবাসীকেও সতর্ক থাকতে হবে বলে এদিন আবারও বার্তা দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

মঙ্গলবার আলিপুরদুয়ার ও জলপাইগুড়ি জেলার প্রশাসনিক কর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন মুখ্যমন্ত্রী। সেই বৈঠকেই তিনি বলেন, ‘‘পুজো আসছে বলেই করোনাকে অবহেলা করবেন না। পরিস্থিতি কোন দিকে যায় তার ওপর নজর রাখতে হবে।’’

রাজ্যের অন্য অংশের তুলনায় উত্তরবঙ্গের করোনা পরিস্থিতি এখন অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে এসেছে। এদিন প্রশাসনিক বৈঠকে মুখ্যসচিব রাজীব সিনহাও সেকথা জানিয়েছেন। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও করোনার মোকাবিলায় স্বাস্থ্যকর্মী ও আশাকর্মীদের ভূমিকার ভূয়সী প্রশংসা করেছেন।

পশ্চিমবঙ্গেও করোনার সংক্রমণ বাড়ছে। প্রতিদিন হাজার-হাজার মানুষ নতুন করে সংক্রমিত হচ্ছেন। পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃত্যুও। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী মঙ্গলবার বিকেল পর্যন্ত রাজ্যে নোভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ২ লক্ষ ৫০ হাজার ৫৮০।

এর মধ্যে এখনও পর্যন্ত করোনামুক্ত হয়েছেন ২ লক্ষ ১৯ হাজার ৮৪৪ জন। বাংলায় এখনও পর্যন্ত করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৪ হাজার ৮৩৭ জনের।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।