স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: বুথ ফেরৎ সমীক্ষার পুনর্গণনার দাবি করেছেন মুখ্যমন্ত্রী৷ ট্যুইটে এমনটাই দাবি বাবুল সুপ্রিয়র৷

বুথ ফেরৎ সমীক্ষায় প্রকাশ বাংলায় এবার ভালো ফল করবে বিজেপি৷ ২ থেকে তাদের আসন বেড় হতে পারে ১১ থেকে ১৬-র মধ্যে৷ তৃণমূল পেতে পারে ২৪ থেকে ২৮টি আসন৷ সমীক্ষার এই প্রবণতায় ক্ষুব্ধ মুখ্যমন্ত্রী৷ এই ধরণের ফলের প্রবণতায় ইভিএম কারচুপির আশঙ্কা করছেন তিনি৷ মুখ্যমন্ত্রীর এই ভাবনাকে অবশ্য কটাক্ষ করতে ছাড়েননি আসানসোলের বিজেপি প্রার্থী বাবুল সুপ্রিয়৷

ব্যালট হোক বা ইভিএম৷ বিরোধী নেত্রী থাকাকালীন এর আগে বহুবার পুনরায় ভোট গণনার দাবি জানিয়েছেন তৃণমূল নেত্রী৷ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সেই দাবিই করেছেন বুথ ফেরৎ সমীক্ষার ফলাফলাফলের ক্ষেত্রেও৷ মনে করছেন মোদী মন্ত্রীসভার প্রতিমন্ত্রী৷

সোমবার সকালে ট্যুইটারে তিনি লেখেন, Breaking News – Mamata Banerjee Demands Recounting Of Exit Poll.

আরও পড়ুন: Exit poll-এর প্রভাব পড়তে পারে উপনির্বাচনে, আশঙ্কায় অধীর শিবির

বাংলায় এবার পাপড়ি মেলতে চলেছে পদ্ম৷ বিভিন্ন সর্বভারতীয় সংবাদ মাধ্যমের বুথ ফেরৎ সমীক্ষায় ইঙ্গিত এমনটাই৷ পশ্চিমবঙ্গে বিজেপি পেতে পারে ১১ থেকে ২৩টি আসন৷
৪২-এ ৪২-এর ডাক দিয়েছিলেন তৃণমূল নেত্রী৷ কিন্তু বুথ ফেরৎ সমীক্ষার প্রবণতা সত্যি হলে সে গুড়ে বালি৷ ৪২ তো দূর, তিরিশের ঘরেও পৌঁছতে পারবে না জোড়াফুল শিবির৷ ২০১৪-র তুলনায় প্রায় ৬ থেকে ১০টি আসন কমতে চলেছে তৃণমূল কংগ্রেসের৷

রবিবার তৃণমূল সুপ্রিমো বুথ ফেরৎ সমীক্ষাকে ‘রটনা’ বলে কটাক্ষ করেন৷ ট্যুইটারে তিনি লিখেন, এই ধরনের সমীক্ষা আসলে ‘গসিপ’। তাঁর মতে, এই ধরনের রটনার মাধ্যমে হাজার হাজার EVM-কে প্রভাবিত করার পরিকল্পনা করা হয়েছে। তিনি বিরোধী দলগুলির কাছে আবেদন জানিয়েছেন যাতে সবাই একজোট হয়ে থাকে। তাঁর কথায়, ‘লড়াইটা আমাদের একসঙ্গে লড়তে হবে।’ পরে তিনি বলেন, ‘‘বিরোধীদের মধ্যে অনৈক্য ও ইভিএম কারচুপির জন্যই বিজেপি পরিকল্পনা করে এই কাজ করেছে৷’’

আরও পড়ুন: গেরুয়া ঝড়ে বাধ সাধবে দ্রাবিড়ভূমের ভোট, ইঙ্গিত সমীক্ষায়

মমতার এই আশঙ্কাকেই ঠেঁস দিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় তুলে ধরেছেন বাবুল৷

সমীক্ষার ইঙ্গিত ফের দিল্লির দখন নেবে বিজেপি৷ তবে আসাসনসোলের প্রেসটিজ ফাইটে হারতে হবে পদ্ম প্রার্থী বাবুলকে৷ এবিপি-নিয়েলসন সমীক্ষায় ইঙ্গিত এমনটাই৷ তাই, স্বস্তি নেই তিনি৷ যদিও ট্যুইটারে তিনি বিজেপি কর্মীদের আশ্বস্ত করেছেন৷ তাদের হতাশ হতে নিষেধ করেছেন৷ বিষয়টিকে মজা করে মার্জিন ওফ এরর ও গলতি সে মিলটেক বলেছেন তিনি৷

ট্যুইটে বাবুল লেখেন, Exit Poll দেখে ঘাবড়াবেন না৷ সব Exit Poll-এ তেই একটা ‘Margin of Error’ থাকে! আসানসোলে আমি হারছি বলে যা দেখিয়েছে, সেটা ওই ‘Margin of Error’-ই ! Galti Se Mistake করে ফেলেছে! আমিই জিতব৷

বুথ ফেরৎ সমীক্ষা একটা প্রবণতা মাত্র৷ বাস্তবে তার প্রতিফলন ঘটতেও পারে, নাও পারে৷ কিন্তু সমীক্ষা নিয়ে উদ্বেগে মমতা থেকে বাবুল, জোড়াফুলর থেকে পদ্ম শিবির৷ এদিনের মোগী সরকারের প্রতিমন্ত্রীর ট্যুইয়ে তারই ইঙ্গিত স্পষ্ট৷