খড়গপুর: সীতা রামের মা। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মুখে এই মন্তব্য ঘিরে বুধবার থেকে চলছে বিতর্ক। সোশ্যাল মিডিয়া থেকে পাড়ার চায়ের দোকান আলোচনা এবং সমালোচনা চলছেই।

রামায়ণ নিয়ে সেই বিতর্কের রেশ না কাটতেই মহাভারত নিয়ে শুরু হল বিতর্ক। কারণ মহাভারতের ট্র্যাজিক হিরো কর্ণ-কে মা বলে সম্বোধন করলেন তৃণমূলনেত্রী তথা পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

বৃহস্পতিবার খড়গপুরে মেদিনীপুরের তৃণমূল প্রার্থী মানস ভুঁইঞা-র জন্য সভা করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই সভায় দাঁড়িয়ে ধর্ম নিয়ে বিজেপি শিবিরকে আক্রমণ করেন তিনি। তৃণমূল জমানায় রাজ্যের একাধিক মন্দিরের সংস্কার নিয়ে সওয়াল করেন তিনি।

ধর্ম নিয়ে তৃণমূলের বিরুদ্ধে বিজেপির অভিযোগের জবাব দিতে গিয়ে কর্ণকে ‘মা’ বলে সম্বোধন করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, “এই পাঁচ-ছয় বছরে আমরা যদি তারকেশ্বর মন্দির, মা তারার মন্দির, মা কালীর মন্দির, দক্ষিণেশ্বরে স্কাইওয়াক, খড়গপুরে ইদগাহ, বেলুড় মঠের কাজ, মা কর্ণের মন্দির ভালো করে করতে পারি তাহলে সবার ভালো হয়। কিন্তু বিজেপি নেতারা উলটোপালটা বকছে।”

বুধবার রামায়ণের চরিত্র রাম এবং সীতা নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়েছিল সেই বিতর্কের রেশ না কাটতেই বৃহস্পতিবার বিতর্ক শুরু হল মহাভারত নিয়ে। সৌজন্যে আবারও সেই তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিন বিজেপিকে আক্রমণ করে তিনি আরও বলেন, “পাগলা কুকুর কামড়ালে জলাতঙ্ক হয়। নির্বাচনে হারার ভয়ে মোদীবাবুরা হারাতঙ্কে ভুগছে।”

বুধবার পুরুলিয়ার কোটশিলার জনসভা থেকে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “ইলেকশন এলেই রামচন্দ্র সীতা মাইয়াকে ডাকে৷ ডেকে বলে, সীতা মা সীতা মা আমার মনে হচ্ছে ভারতবর্ষে ভোট এসে গেছে৷ তখন সীতা বলে, কেন ? কেন? তখন রাম বলে, দেখছো না বিজেপি আমার নাম স্মরণ করছে৷ পাঁচ বছর করে না৷ ভোট এলেই রামনাম সত্য হ্যায় আর রামনাম জিন্দাবাদ করে৷