স্টাফ রিপোর্টার, রায়গঞ্জ: রাজ্য প্রথম দফায় ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে আলিপুদুয়ার এবং কোচবিহারে৷ কোচবিহারের বিভিন্ন বুথে শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেস বনাম বিজেপি সংঘর্ষের খবরে উত্তপ্ত বাংলা৷ এরকম অবস্থায় রায়গঞ্জের নির্বাচনী সভা থেকে দাড়িভিটকে হাতিয়ার করে মমতাকে আক্রমণ শানালেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ৷

রায়গঞ্জের মঞ্চ থেকে অমিত বলেন, ‘‘ পশ্চিমবঙ্গের মানুষের উপর জোর করে উর্দু চাপাতে চাইছেন মমতা দিদি৷ দাড়িভিটের ছাত্র আন্দোলনে গুলি চালিয়ে ছাত্রদের হত্যা করেছে এই সরকার৷ দিদি যত অত্যাচার করার এই কটা দিনে করে নিন৷ ২৬ মে বিজেপি সরকার গঠন করার পর তৃণমূলকে বাংলা থেকে উৎখাত করা হবে৷’’

উল্লেখ্য উত্তর দিনাজপুরের দাড়িভিট উচ্চ বিদ্যালয়ে গত বছরের ২০ সেপ্টেম্বর উর্দু এবং সংস্কৃত শিক্ষক নিয়োগকে কেন্দ্র করে আন্দোলনে নেমেছিল ছাত্ররা৷ আন্দোলনরত ছাত্রদের মধ্যে দুজন গুলি লেগে নিহত হন৷ অভিযোগ পুলিশের গুলিতেই দুই ছাত্রের মৃত্যু হয়েছে৷ ঘটনার দিনই মৃত্যু হয় রাজেশ সরকার নামে এক ছাত্রের৷ পরে উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজে মৃত্যু হয় অপর ছাত্র তাপস বর্মনের৷

গোটা ঘটনায় উত্তপ্ত হয়ে ওঠে গ্রাম৷ সিবিআই তদন্তের দাবিতে আন্দোলনে নামেন মৃত দুই ছাত্রের পরিবার সহ গ্রামবাসীদের একাংশ৷ মৃত দুই ছাত্রের নিথর দেহ বলঞ্চা নদীর পাশে কবর দেওয়া হয়েছিল। এমনকি এই ঘটনায় দক্ষিণ দিনাজপুরের বর্তমান স্কুল পরিদর্শক নারায়ণ সরকারকে সাসপেন্ড করেছিল শিক্ষা দফতর। সাসপেন্ড অর্ডারে কারণ হিসেবে উল্লেখ ছিল দাড়িভিটের ঘটনার কথা৷

অমিত শাহ আরও বলেন, রাজ্যে সন্ত্রাস চালাচ্ছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার৷ সেই সন্ত্রাস থেকে একমাত্র বাঁচাতে পারেন নরেন্দ্র মোদী৷ এরপর মঞ্চের নীচে থাকা সমর্থকদের উদ্দেশ্যে অমিত শাহ প্রশ্ন ছুঁড়ে দেন, ‘‘আপনারা বাংলা শিখতে চান নাকি উর্দু?’’ সভার থেকে উত্তর আসে বাংলা৷ রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের একাংশের মতে দাড়িভিট কান্ডের পর থেকে রায়গঞ্জ লোকসভাকে ভালো মতো গুরুত্ব দিচ্ছে৷ দাড়িভিটকে সামনে রেখেই এখানে জয়ের জন্য ঘুটি সাজাচ্ছে মোদী ব্রিগেড৷