কলকাতা: কেন্দ্রের সঙ্গে মমতা সরকারের সংঘাত নতুন নয়। আগেও একাধিকবার সামনে এসেছে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীর তরজা। সাম্প্রতিককালেও এমন সংঘাত প্রকাশ্যে এসেছে। আর এই প্রসঙ্গেই মুখ খুললেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

কেন্দ্রের বিরুদ্ধে মুখ খুলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, রাজ্য যখন করোনা ভাইরাস আর আমফানের সঙ্গে লড়াই করছে, তখন রাজনীতি করার সময় নয়। বিজেপির বিরুদ্ধে এই কঠিন পরিস্থিতিতেও রাজনীতি করার অভিযোগ তোলেন তিনি।

শুক্রবার বিশ্ব পরিবেশ দিবস উপলক্ষে একটি অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘আমার খুব খারাপ লাগে যে, আমরা যখন করোনা ভাইরাস আর আমফানের সঙ্গে লড়াই করছি, মানুষের প্রান বাঁচানোর চেষ্টা করছি, কিছু রাজনৈতিক দল তখন আমাদের সরিয়ে দেওয়ার কথা বলছে। আমি তো কখনও বলিনি যে মোদীকে দিল্লি থেকে সরিয়ে দেওয়া উচিৎ।

কেন্দ্রের কড়া সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘এটঅ কী রাজনীতি করার সময়? গত তিন মাস ধরে এরা কোথায় ছিল? আমরা মাঠে নেমে কাজ করছি। বাংলা করোনার বিরুদ্ধেও জয়ী হবে, ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধেও।’

তিনি আরও বলেন, ইতিমধ্যেই ক্ষতিগ্রস্ত ২৫ লক্ষ কৃষককে ও ৫ লক্ষ পরিবার যাদের‌ বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, তাদের ক্ষতিপূরণ দিয়েছে রাজ্য সরকার।

সম্প্রতি মুখ্যমন্ত্রী দাবি করেছেন যে সাইক্লোনের জেরে রাজ্যে ১ লক্ষ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে। আর সেই প্রসঙ্গেই বিজেপি আক্রামণ করে বলেছে যে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় টাকা নেওয়ার জন্য একথা বলেছেন। দিলীপ ঘোষ বলেছেন, ‘আগে সিপিএম এমনটা করত, এখন সেই রোগই তৃণমূলের মধ্যে ছড়িয়েছে।’

সম্প্রতি মুখ্যমন্ত্রী দাবি করেছেন যে সাইক্লোনের জেরে রাজ্যে ১ লক্ষ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে। আর সেই প্রসঙ্গেই বিজেপি আক্রামণ করে বলেছে যে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় টাকা নেওয়ার জন্য একথা বলেছেন। দিলীপ ঘোষ বলেছেন, ‘আগে সিপিএম এমনটা করত, এখন সেই রোগই তৃণমূলের মধ্যে ছড়িয়েছে।’

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প