নিউজ ডেস্ক, কলকাতা: অমিত শাহের মিছিলে বহিরাগত দুষ্কৃতীদের নিয়ে আসা হয়েছিল। তাদের দিয়েই তাণ্ডব চালানো হয়েছে বিদ্যাসাগর কলেজে। এমনটাই অভিযোগ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

মঙ্গলবার সন্ধের তাণ্ডবের পর থেকেই তৃণমূল-বিজেপি কাদা ছোঁড়াছুঁড়ি। এরই মধ্যে সাংবাদিক বৈঠকে মমতা বললেন, বাবরির থেকেও ভয়ঙ্কর দাঙ্গা হয়েছে কলকাতায়।

মঙ্গলবার বিদ্যাসাগর কলেজে তাণ্ডব চালায় দুষ্কৃতীরা। ভেঙে দেওয়া হয় বিদ্যাসাগরের মূর্তি। কার্যত ধ্বংসলীলা চলে বিদ্যাসাগর কলেজে। এইভাবে বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙচুর করার ঘটনায় তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে বহু মানুষ।

এই প্রসঙ্গেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বলেন, ‘কলকাতায় দাঙ্গার পরিস্থিত তৈরি করতে চাওয়া হয়েছে। বাবরি মসজিদ ভাঙার পরও এমন পরিস্থিতি দেখিনি।’ তিনি আরও বলেন, মূর্তি ভাঙা নিয়ে মোদী কোনও অনুশোচনা প্রকাশ করেননি। মমতার কথায়, ‘যারা ভেঙেছে, তাদের কাছ থেকে অনুশোচনা আশাও করতে পারি না।’

এদিন, বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙার ঘটনায় চরম পরিস্থিতিতে রাজ্য জুড়ে প্রতিবাদ মিছিলে নামে তৃণমূল থেকে বামফ্রন্ট৷ আর এরই মধ্যে দায়ের হয় জোড়া এফআইআর৷

জানা গিয়েছে, আমহার্স্ট স্ট্রিট থানায় অভিযোগ দায়ের করেন বিদ্যাসাগর কলেজের ছাত্রছাত্রীরা। পাশাপাশি, জোড়াসাঁকো থানায় বিজেপির বিরুদ্ধে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীরাও এফআইআর দায়ের করে বলে সংবাদ মাধ্যম সূত্রে খবর৷ ২টি এফআইআর জামিন অযোগ্য ধারায় করা হয়েছে৷

বুধবার শেষ দফার আগে রাজ্য থেকে সরানো হয়েছে দুই গুরুত্বপূর্ণ আধিকারিককে। কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তে ক্ষুব্ধ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই জন্যই এদিন সাংবাদিক বৈঠক ডাকেন তিনি।

এদিন এডিজি সিআইডি রাজীব কুমারের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নিয়েছে নির্বাচন কমিশন। রাতারাতি বাংলা থেকে সরিয়ে দিল্লিতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকে যেতে বলা হয়েছে সারদা-কাণ্ডে নাম উঠে আসা এই পুলিশ অফিসারের। আগামীকাল বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার মধ্যে মন্ত্রকে গিয়ে হাজিরার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

স্বরাষ্ট্রসচিব অত্রি ভট্টাচার্যকেও সরানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এমনই গুরুত্বপূর্ণ নির্দেশ দিল নির্বাচন কমিশন। বর্তমান পরিস্থিতিতে স্বরাষ্ট্রসচিবের কাজ দেখবেন মুখ্যসচিব মলয় দে।