লন্ডন: ৯০০০কোটি টাকার ঋণখেলাপের অভিযোগ থাকলেও আদালতে হাজিরা দিয়ে নিজেকে নির্দোষ বলেই দাবি করলেন বিজয় মালিয়া৷ শুধু তাই নয়, তাঁর হাতে এ নিয়ে যথেষ্ট প্রমাণ রয়েছে বলেও দাবি করেছেন৷

গত এপ্রিলে স্কটল্যান্ড ইয়ার্ডের হাতে গ্রেফতার হলেও আপাতত জামিনে মুক্ত লিকার ব্যারন৷ ঋণ পরিশোধ না করার অভিযোগে পাশপোর্ট বাতিল করে ভারত ইংল্যান্ড থেকে তাঁকে প্রত্যর্পণের আবেদন জানিয়েছিল৷ মঙ্গলবার ওয়েস্টমিনস্টার ম্যাজিস্ট্রেট ’স কোর্টে সেই মামলার শুনানির জন্য এসেছিলেন মালিয়া৷ এদিনও আদালত আগামী ৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত তাঁর জামিন মঞ্জুর করেছে তবে পরবর্তী শুনানি ৬ জুলাই৷

এদিন আদালত চত্বরে সাংবাদিকদের দেখে ক্ষোভ প্রকাশ করেন৷ তিনি তাদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘আপনারা কোটি কোটি পাউন্ডের স্বপ্ন দেখতে থাকুন৷ আমি উত্তর দেব না !’ মালিয়া ঋণ না মিটিয়ে ২০১৬ -র মার্চে ইংল্যান্ডে পালিয়ে এলে ভারতের ‘ওয়ান্টেড ’ তালিকায় নাম ওঠে এই ৬১ বছরের শিল্পপতি -সাংসদের৷

মালিয়াকে ভারতে প্রত্যর্পণের সূত্রে গত ১৮ এপ্রিল তাঁকে গ্রেফতার করে স্পকটল্যান্ড ইয়ার্ড৷ কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই অবশ্য সাড়ে ছ’লক্ষ পাউন্ডের বন্ডের বিনিময়ে তিনি জামিন পান তিনি৷ ব্রিটেনের ক্রাউন প্রসিকিউশন সার্ভিস (সিপিএস ) ভারত সরকারের তরফে আদালতে মামলা লড়ছে৷ মালিয়ার হয়ে লড়াই করছে জোসেফ হেগ অ্যারনসন এলএলপি নামে একটি ফার্ম৷ মামলায় মালিয়াকে প্যাচে ফেলতে তথ্য প্রমাণ জোগাড় করে কতটা সক্রিয় ভারতের আইনজীবী তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে৷

যখন দেশ তোলপাড় একের পর এক কৃষকের আত্মহত্যার যেখানে দেশে ঋণ শোধ না করতে পেরে কৃষকরা আত্মহত্যা করছে সেখানেই আবার এত বড় অংকের ঋণের টারা পরিশোধ না করে দেশে ছেড়ে পালিয়ে বহাল তবিয়তে বিলাসে লন্ডনে দিন কাটাচ্ছেন মালিয়া৷ তিনি বিখ্যাত ( পড়ুন কুখ্যাত) তাই তাঁর লজ্জা ঘৃণা ভয় বলে কিছু নেই৷ কিন্তু গত সপ্তাহে ভারত -দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেট ম্যাচ দেখতে গিয়ে দর্শকদের একাংশের ‘চোর , চোর ’ চিত্কারের মাঝে পড়তে হয় মালিয়াকে৷ যদিও তিনি যেন ভাবলেশহীন৷