কলকাতা:  পুরুষ পুলিশ কর্মীদের হাতে হেনস্তা হয়েছি। এমনই বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন বিজেপি নেত্রী রিমঝিম মিত্র। আজ বুধবার বিজেপির কলকাতা পুরসভা অভিযান ঘিরে উত্তাল হয়ে ওঠে মধ্য কলকাতা। সেখানে বিক্ষোভ দেখাতে গিয়ে আটক হন অভিনেত্রী তথা বিজেপি নেত্রী রিমঝিম মিত্র। লালবাজারে নিয়ে যাওয়া হয়েছে তাঁকে। তাঁর সঙ্গেই পুলিশের প্রিজন ভ্যানে তোলা হয়েছে অন্যান্য বিজেপির মহিলা মোর্চার অন্যান্য সদস্যদেরও। বিজেপি নেত্রী রিমঝিমের সঙ্গেই এদিন বিজেপির কর্মসূচিতে ছিলেন অভিনেত্রী তথা বিজেপি নেত্রী কাঞ্চনা মৈত্র।

পড়ুন আরও- বিজেপির পুরসভা অভিযান ঘিরে উত্তেজনা, গ্রেফতার রিমঝিম মিত্র

আটক অবস্থায় সর্বভারতীয় এক সংবাদমাধ্যমকে রিমঝিম বলেন, আমরা শান্তিপূর্ণভাবেই বিক্ষোভ দেখাচ্ছিলাম। কিন্তু বিনা প্ররোচনাতে পুলিশ আমাদের পার্টি-কর্মীদের উপর লাঠিচার্জ করেছে বলে অভিযোগ বিজেপি নেত্রীর। আর তা বলতে গিয়েই অভিনেত্রী বিস্ফোরক মন্তব্য করে বলেন, কোনও মহিলা পুলিশ কর্মী ছিলেন না সেখানে। পুরুষ পুলিশ কর্মীদের হাতে হেনস্তা হতে হয়েছে বলে বিস্ফোরক মন্তব্য করেন রিমঝিম মিত্র।

পড়ুন আরও- আট ঘন্টার বেশি কাজ করলে মিলবে ইনসেনটিভ, ঘোষণা মমতার

প্রসঙ্গত, আজ বুধবার বিজেপির পুরসভা অভিযানকে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্রের আকার নেয় কলকাতা৷ চাঁদনিচকে মিছিল আটকে দেওয়া হলে,আন্দোলনকারীদের সঙ্গে পুলিশের ধস্তাধস্তি শুরু হয়৷ পুলিশকে লক্ষ্য করে জলের বোতল ছোড়ার অভিযোগ বিজেপি নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে৷ চাঁদনিচকে ভেঙে ফেলা হয় ব্যারিকেডের একাংশ৷ রাস্তার উপর জ্বালানো হয় টায়ার৷ জল কামান দিয়ে আন্দোলনকারীদের ছত্রভঙ্গ করে পুলিশ৷ এরপরেই উত্তেজিত বিজেপি নেতা-কর্মীদের ‘ঠান্ডা’ করতে পুলিশ ব্যাপক লাঠি চার্জ করে বলে অভিযোগ৷ পিছু হটে বিজেপির নেতা-নেত্রী ও কর্মীরা৷ বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে বলে অভিযোগ৷

অন্যদিকে বিজেপি নেত্রী রিমঝিম জানিয়েছেন, বিজেপির তরফে আগে থেকেই পুলিশের কাছ থেকে সবকিছুর জন্যে অনুমতি নেওয়া ছিল। কিন্তু এরপরেও পুলিশ জল কামান ছোঁড়ে এবং লাঠিচার্জ করে বলে দাবি দাবি তাঁর। অন্যদিকে বিজেপির তরফে জানানো হয়েছে যে, বিনা প্ররোচনাতে পুলিশ লাঠিচার্জ করেছে। বেছে বেছে নেতা-কর্মীদের গ্রেফতার করা হচ্ছে। অনুমতি থাকা সত্ত্বেও পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন বিজেপির।