মালদহ: নাগরিকত্ব আইন ও এনআরসির প্রতিবাদে এবার পথে নামল মালদহের ইংরেজবাজারের বুধিয়া হাই মাদ্রাসার ছাত্র-ছাত্রীরা। হাজারেরও বেশি ছাত্র-ছাত্রী এদিন প্ল্যাকার্ড ও ফেস্টুন হাতে প্রতিবাদ মিছিলে সামিল হয়েছিল। ছাত্রছাত্রীদের আন্দোলনকে সমর্থন জানিয়েছেন হাই মাদ্রা কর্তৃপক্ষও। মঙ্গলবার দুপুরে কোতোয়ালির বুধিয়া হাই মাদ্রাসার কাছেই একটি মাঠে জমায়েত হয় ছাত্রছাত্রীদের। এরপর প্ল্যাকার্ড হাতেই শুরু হয় পদযাত্রা।

নাগরিকত্ব আইন ও এনআরসির প্রতিবাদে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে আন্দোলন চলছে। বিজেপি বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলির পাশাপাশি কেন্দ্রের বিরুদ্ধে পথে নেমে আন্দোলন করছেন বিভিন্ন স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীরা। দেশের বিশিষ্টজনেদের একাংশও পথে নেমে কেন্দ্র বিরোধিতায় সামিল হয়েছেন। এরাজ্যেও নাগরিকত্ব আইন ও এনআরসি নিয়ে প্রবলভাবে প্রতিবাদ হয়েছে।

গত ডিসেম্বর মাসের টানা কয়েকটি দিন সিএএ ও এনআরসি নিয়ে উত্তাল হয়েছিল রাজ্য। আন্দোলনের নামে তাণ্ডবও চলে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে। বাস পুড়িয়ে, ট্রেন জ্বালিয়ে প্রতিবাদে সরব হতে থাকেন বিক্ষোভকারীদের একাংশ। যদিও আন্দোলনের নামে হিংসা কোনওমতেই বরদাস্ত না করার ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়। কেন্দ্রীয় আইনের প্রতিবাদে শান্তিপূর্ণভাবে আন্দোলনের বার্তা দেন মুখ্যমন্ত্রী। তারপর থেকেই পরিস্থিতি অনেকটা নিয়ন্ত্রণে আসে। এখনও শান্তিপূর্ণভাবেই সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন ও এনআরসির বিরুদ্ধে বিক্ষোভ-আন্দোলন চলছে রাজ্যের বিভিন্ন এলাকায়।

মালদহে এবার হাই মাদ্রাসার পড়ুয়ারাও কেন্দ্র-বিরোধিতায় সামিল হল। কেন্দ্র-বিরোধিতায় একের পর এক স্লোগান তুলল পড়ুয়ারা। কেন্দ্রের এই দুই আিন বাতিলের দাবিতে সরব হলেন ইংরেজবাজারের হাই মাদ্রাসার পড়ুয়ারা। মাদ্রাসার শিক্ষকদেরও সমর্থন ছিল ছাত্রছাত্রীদের এই প্রতিবাদ কর্মসূচিতে। আর তাই কেন্দ্র-বিরোধিতায় স্বতস্ফুর্ত সাড়া পাওয়া যায় পড়ুয়াদের তরফে।

এর আগেও কলকাতার রাস্তায় নাগরিকত্ব আইন ও এনআরসির প্রতিবাদে সরব হয়েছেন কলকাতা, যাদবপুর ,প্রেসিডেন্সি-সহ একাধিক কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা। কেন্দ্রের বিরুদ্ধে বিভাজনের রাজনীতির অভিযোগ তুলে সরব হয়েছেন পড়ুয়ারা। দিন কয়েক আগে কলকাতায় সরকারি অনুষ্ঠানে এসেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সেদিন কলকাতার রাস্তা ছিল কার্যত অবরুদ্ধ। সিএএ ও এনআরসির প্রতিবাদে মহানগরীজুড়ে প্রতিবাদ-বিক্ষোভে সামিল হয়েছিলেন পড়ুয়ারা। পড়ুয়াদের বিক্ষোভ সামলাতে হিমশিম দশা হয়েছিল পুলিশের। একাধিক জায়গায় পুলিশের সঙ্গে বচসাতেও জড়িয়ে পড়েন ছাত্রছাত্রীদের একাংশ।

তবে এদিন মালদহে শান্তিপূর্ণভাবেই প্রতিবাদ মিছিল করেছেন পড়ুয়ারা।