মালদহ:  বেআইনি ভাবে গাছ কাটা নিয়ে কংগ্রেস তৃণমূল কংগ্রেস চাপান-উতোর। বেআইনিভাবে আম গাছ কেটে বিক্রি করার অভিযোগ কংগ্রেস ও সিপিএম আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে। জেলা শাসকের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের তৃণমূল প্রধানের। শাসক দলের একাংশের মতে গাছ কাটা হচ্ছে বলে পাল্টা দাবি কংগ্রেসের। ঘটনাটি ঘটেছে রতুয়া থানা এলাকায়।

রতুয়ায় ওয়াকাফ স্টেটের ৩৬ বিঘা জমির ওপর আমবাগান রয়েছে।সেই বাগান থেকে প্রকাশ্য দিবালোকে গাছ কেটে বিক্রি করা শুরু করে দুষ্কৃতীরা। রতুয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের তৃণমূল প্রধান আলমগীর রেজা চৌধুরী অভিযোগ করে বলেন, কংগ্রেস এবং সিপিএম আশ্রিত দুষ্কৃতীরা প্রকাশ্য দিবালোকে গাছ কেটে নিয়ে যাচ্ছে। তৃণমূল কংগ্রেসকে বদনাম করার জন্য ষড়যন্ত্র করছে কংগ্রেস এবং সিপিএম। বিষয়টিতে প্রশাসনিক হস্তক্ষেপের জন্য জেলাশাসককে লিখিতভাবে জানানো হয়েছে বলেও তিনি জানান।

অভিযোগ অস্বীকার করে কংগ্রেসের দাবি, পঞ্চায়েত থেকে বিধানসভা শাসক দলের দখলে। কংগ্রেসের সেখানে ক্ষমতা নেই। গাছ কাটার পিছনে মদত রয়েছে তৃণমূলের একটা অংশের বলে অভিযোগ করেন জেলা কংগ্রেসের সহ-সভাপতি কালিসাধন রায়। কারা গাছ কেটে বিক্রি করছে তাদের গ্রেফতার করলে সামনে আসবে। কারা এই ঘটনায় যুক্ত দাবি জেলা সিপিএম সম্পাদক অম্বর মিত্রর। অভিযোগ পাওয়ার পরই নড়েচড়ে বসে জেলা প্রশাসন। জেলা শাসকের নির্দেশে রতুয়া থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে গাছের গুড়ি কিছু উদ্ধার করেছে। জেলা শাসক রাজর্ষী মিত্র জানান ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।