মালদহঃ  শাসক দলের চোখ রাঙানি। আর রাতের অন্ধকারে সরকারি রাস্তার মাটি তুলে নিয়ে সেই মাটি দিয়েই নিচু জমি ভরাট করে তৈরি হয়েছে বিশাল গুদাম ঘর। এভাবে মাটি তুলে নিয়ে যাওয়ার কারণে সম্পূর্ণ ভেঙে গিয়েছে রাস্তা। আর যার ফলে কার্যত যাতায়াত বন্ধ হয়ে গিয়েছে গ্রামবাসীদের। অভিযোগের তীর তৃণমূল আশ্রিত জমি মাফিয়াদের বিরুদ্ধে। গ্রামবাসীরা এই বিষয়ে প্রতিবাদ করলে তাদের প্রাণনাশের হুমকি দেওয়া হচ্ছে বলেও অভিযোগ।

এমনকি মিথ্যে মামলায় ফাঁসিয়ে দেওয়ারও অভিযোগ। শুধু তাই নয়, এই বিষয়ে প্রতিবাদ করতে গেলে খোদ দলীয় সমর্থকদেরও চরম হেনস্তার শিকার হতে হচ্ছে এই মাফিয়াদের দ্বারা। আতঙ্কে গ্রামছাড়া বেশ কয়েকটি পরিবার।মালদহ থানার মঙ্গলবাড়ী গ্রাম পঞ্চায়েতের উত্তরপাড়া গ্রামে চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটছে।

স্থানীয় গ্রামবাসীরা জানিয়েছেন ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কের সাথে সংযোগকারী একমাত্র এই রাস্তাটি ছিল গ্রামবাসীদের যাতায়াতের ভরসা। কয়েকশো মানুষ প্রতিদিন এই রাস্তা দিয়েই যাতায়াত করে। কালাম শেখ সহ কিছু তৃণমূল আশ্রিত মাটি মাফিয়া কয়েকদিন আগেই রাতের অন্ধকারে জেসিপি দিয়ে সমস্ত রাস্তার মাটি তুলে ফেলে। পাশের একটি নিচু জমি ভরাট করে। আর তার উপরে তৈরি হয়েছে বিশাল গুদাম। গ্রামবাসীরা এনিয়ে প্রতিবাদ করতেই তাদের মিথ্যা মামলায় ফাঁসিয়ে দেওয়া ও প্রাণনাশের হুমকি দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ।

পুলিশের একাংশের মদতেই চলছে এই কাজ চলছে বলে চাঞ্চল্যকর অভিযোগ স্থানীয় মানুষজনের। এনিয়ে তারা ভূমি সংস্কার দফতর থেকে শুরু করে জেলার পুলিশ সুপার জেলাশাসক ও মালদহ জেলা পরিষদের দ্বারস্থ হয়েছেন। কিন্তু এখনও পর্যন্ত কোনও সুরাহা হয়নি বলেই দাবি স্থানীয়দের।

মালদহ জেলা পরিষদের বন ও ভূমি কর্মধক্ষ্য পিংকি সরকার মাহাতো বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। দ্রুত ঘটনার তদন্ত শুরু করব। এইভাবে সরকারী রাস্তার মাটি কাটা যায় না। এটা বেআইনি কাজ। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। জেলা বিজেপির নেতা সুদীপ্ত চট্টোপাধ্যায় এই ঘটনা নিয়ে শাসকদলের বিরুদ্ধে তোপ দেগেছেন। তিনি বলেন, রাজ্যজুড়ে জমি মাফিয়া ও মাটি মাফিয়াদের রাজত্ব চলছে। আর তাদের মদত যোগাচ্ছে শাসক দলের নেতাকর্মীরা। বিজেপির এর বিরুদ্ধে আন্দোলনে নামতে চলেছে।

এদিকে এই টানাপোড়েনের মধ্যে চরম আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছেন বেশ কয়েকটি পরিবার।