নয়াদিল্লি: দুঃখের হলেও এটাই সত্যি যে আমাদের দেশে পুরস্কারের মাপকাঠি হিসেবে পারফরম্যান্সকে কম গুরুত্ব দেওয়া হয়। পরিবর্তে প্রয়োজন নির্বাচক প্যানেলের সঙ্গে তোমার সুসম্পর্ক। অর্জুন প্রাপকের তালিকা থেকে বাদ পড়ে এমনই বিস্ফোরক অভিযোগ আনলেন দেশের তারকা শাটলার এইচএস প্রণয়।

ব্যাডমিন্টন অ্যাসোসিয়েশন অফ ইন্ডিয়ার তরফ থেকে চলতি বছর অর্জুন পুরস্কারের জন্য প্রস্তাব করা হয় এইচএস প্রণয়, বিসাই প্রণীত ও মনু আত্রির নাম। প্রণয় ও আত্রিকে পিছনে ফেলে ১২ সদস্যের কমিটি শনিবার ‘অর্জুন’ পুরস্কারে মনোনীত করে বিসাই প্রনীতকে। এরপরই বিস্ফোরক হয়ে ওঠেন এই মুহূর্তে দেশের ব্যাডমিন্টন সার্কিটে দু’নম্বর শাটলার এইচএস প্রণয়। অর্জুন, খেলরত্ন সহ বিভিন্ন বিভাগে এদিন পুরস্কার প্রাপকদের নাম ঘোষণা হতেই এদিন ক্ষোভ উগড়ে দেন ২০১৮ কমনওয়েলথ গেমসে মিক্সড ইভেন্টে সোনাজয়ী প্রণয়।

মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটারে বছর সাতাশের শাটলার লেখেন, ‘পুরস্কার তালিকায় তোমার নাম দেখতে চাইলে এমন মানুষের সঙ্গে যোগাযোগ কর যে তোমার নাম তালিকায় রাখবে। পারফরম্যান্স আমাদের দেশে গৌণ। খারাপ শোনালেও কিছু করার নেই। যাও যতক্ষণ পারবে খেলে যাও।’ উল্লেখ্য, ২০১৬ পুরুষদের দলগত বিভাগে সোনা, ২০১৮ কমনওয়েলথ গেমসে মিক্সড ইভেন্টে সোনা, একই বছরে এশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে সিঙ্গলসে ব্রোঞ্জ জয়। অর্জুনে মনোনীত হবার মাপকাঠি হিসেবে দেশের ২ নম্বর (বিশ্বের ৩১ নম্বর) প্রণয়ের ঝুলিতে ছিল প্রয়োজনীয় পারফরম্যান্স। তারপরেও অর্জুন প্রাপকের তালিকা থেকে বাদ পড়লেন নয়াদিল্লির এই শাটলার। প্রণয় ‘অর্জিন’ না পাওয়ায় অবাক প্রখ্যাত ক্রীড়া সাংবাদিক বোরিয়া মজুমদারও টুইটারে তাঁর হতাশা প্রকাশ করেন।

উল্লেখ্য, আন্তর্জাতিক সার্কিটে প্রণয়ের ন্যায় সাফল্য নেই প্রণীতের। পাশাপাশি দেশের ব্যাডমিন্টন র‍্যাংকিংয়েও প্রণয়ের চেয়ে পিছিয়ে রয়েছেন প্রণীত। তাই প্রণয়ের ‘অর্জুন’ না পাওয়ার ঘটনায় অবাক প্রখ্যাত ক্রীড়া সাংবাদিক বোরিয়া মজুমদার। তবে ব্যাডমিন্টন অ্যাসোসিয়েশন অফ ইন্ডিয়া এবিষয়ে সাফাই দিয়ে জানিয়েছে, ‘প্রণয়ের নামটি প্রস্তাব হিসেবে মেয়াদ পেরিয়ে যাওয়ার পর ক্রীড়ামন্ত্রকের কাছে পৌঁছেছিল।’

একইসঙ্গে শুটিং কোচ যশপাল রানা দ্রোণাচার্য সম্মান না পাওয়ায় তৈরি হয়েছে বিতর্ক। অলিম্পিকে সোনাজয়ী অভিনব বিন্দ্রা প্রতিবাদ জানিয়ে লিখেছেন, টোকিও অলিম্পিকে পদক জিতেই এর যোগ্য জবাব দেবে তার শিষ্যরা।