কলকাতাঃ  ফিরে এসেছে পোস্তা স্মৃতি! তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়েছে মাঝেরহাট ব্রিজের একাংশ। যদিও দীর্ঘদিন ধরেই মাঝেরহাট ব্রিজ সংস্কারের দাবি আসছিলেন স্থানীয় মানুষজন। কিন্তু অভিযোগ, সেই বিষয়ে কোনও কর্ণপাত করেননি প্রশাসন। আর যার ফল আজকের ঘটনা! কেউ কিছু বুঝে ওঠার আগেই হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ল মাঝেরহাট ব্রিজ। ভেঙে পড়া ধ্বংসস্তুপের মধ্যে অনেকের আটকে থাকার আশঙ্কা। এরই মধ্যে যুদ্ধকালীন তৎপরতায় চলছে উদ্ধার কাজ। কিন্তু এখানেই আশঙ্কা এখনও পর্যন্ত কাটেনি।

কারণ ব্রিজের অপর অংশ বিপদজ্জনকভাবে এখনও ঝুলে রয়েছে। যা পরিস্থিতি তাতে যে কোনও মুহূর্তে ব্রিজের অন্য অংশও ভেঙে পড়তে পারে। ইতিমধ্যে‌ই দুর্গতদের উদ্ধারের জন্য বিপর্যয় মোকাবিলা দফতরের কর্মীরা নেমে পড়েছে। রয়েছে ভারতীয় সেনার জওয়ানরাও। গোটা এলাকা ঘিরে ফেলেছে পুলিশ। বন্ধ করা হয়েছে যান চলাচল। উদ্ধারকারী দলের কাছে চ্যালেঞ্জ কীভাবে ব্রিজের বাকি অংশ ভেঙে ফেলা যায়। কিন্তু তা করার আগেই যদি ব্রিজের বাকি অংশটি ভেঙে পড়ে তাহলে বড় বিপদ ঘনিয়ে আসতে পারে বলে আশঙ্কা উদ্ধারকারী দলের।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.