নয়াদিল্লি: আবার শিরোনামে তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্র। দীর্ঘদিনের রাজনৈতিক লড়াইয়ের পর অবশেষে সাংসদ হয়েছেন তিনি। আর লোকসভায় প্রথম দিনের বক্তব্য থেকেই তিনি ভাইরাল।

আর এবার একটি টেলিভিশন শো-তে গিয়ে ফের শিরোনামে উঠে এলেন এই নয়া তৃণমূল সাংসদ।

সদ্য একটি টেলিভিশন শো-তে সাক্ষাৎকার দিতে গিয়ে মহুয়া মৈত্র বালাকোটের সঙ্গে পুলওয়ামাকে গুলিয়ে ফেলেন। বালাকোট বলেই তিনি পুলওয়ামা হামলার বর্ণনা দিতে শুরু করেন। বলেন, ”বালাকোটে সেনা জওয়ানদের কোনও নিরাপত্তা দেওয়া হয়নি, এয়ার লিফট করে নিয়ে যাওয়া হয়নি..” ইত্যাদি।

এই পর্যন্ত বিষয়টা তাও মেনে নিয়েছিল নেটিজেনরা। কিন্তু তাই বলে টেররিস্ট-কে বললেন ‘২০ বছরের ছেলে।’ আর তাতেই ফের একবার ভাইরাল মহুয়া মৈত্র। মহুয়া বলছেন, ”২০ বছরের একটি ছেলে এসইউভি নিয়ে ধাক্কা মারল।” জঙ্গিকে এইভাবে সম্বোধন করাটা মেনে নিচ্ছেন না কেউই।

মহুয়ার ভিডিও ট্যুইট করেছেন ত্রিপুরার গভর্নর তথাগত রায়ও। তিনি লিখেছেন, ‘কেউ কী চমকালেন নাকি?’কেউ আবার মনে করিয়ে দিয়েছেন যে তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পুলওয়ামা হামলায় পাকিস্তানের কোনও দোষ দেখেলনি এমনকি বালাকোটে বায়ুসেনার এয়ারস্ট্রাইক নিয়েও প্রশ্ন তোলেন।
এদিকে, সংসদে নকল করে ভাষণ দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে মহুয়ার বিরুদ্ধে। এরপরই পালটা বিবৃতি জারি করেন কৃষ্ণনগরের সাংসদ মহুয়া মিত্র। তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা যাবতীয় অভিযোগ খণ্ডন করেছেন তিনি।

বিবৃতিতে মহুয়াদেবী জানিয়েছেন, তাঁর বিরুদ্ধে ওয়াশিংটন মান্থলি পত্রিকায় ডোনাল্ড ট্রাম্পকে নিয়ে লেখা ‘প্রতিবেদন চুরি’-র অভিযোগ ভ্রান্ত। তথ্যসূত্র উল্লেখ না করলে ‘প্রতিবেদন চুরি’-র অভিযোগ করা যায়। কিন্তু এক্ষেত্রে তিনি সূত্র উল্লেখ করেছেন। ভাষণে জানিয়েছেন, তাঁর ভাষণ ড. লরেন্স ডাবলু ব্রিটের তৈরি একটি পোস্টার থেকে তৈরি। জার্মানির হলোকাস্ট জাদুঘরে রয়েছে ওই পোস্টার।

মহুয়া আরও জানিয়েছেন, হলোকাস্ট জাদুঘরের ওই পোস্টারে ফ্যাসিবাদের ১৪টি লক্ষণ উল্লেখ করা হয়েছে। তার মধ্যে ৬ লক্ষণ ভারতের জন্য প্রাসঙ্গিক বলে মনে হয়েছে তাঁর। ওয়াশিংটন মান্থলিতে প্রকাশিত প্রতিবেদনে ১২টি লক্ষণের উল্লেখ ছিল।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও