কলকাতা : জনপরিয় ধারাবিহক ‘মা..তোমায় ছাড়া ঘুম আসে না’য়ের কথা আশা করি সকলের মনে আছে৷ সেই সিরিয়ালের মুখ্য অভিনেত্রী ছিলেন তিথি বসু এবং মহুয়া হালদার৷ মহুয়া ছিলেন মায়ের চরিত্রে৷ সেই মহুয়ার বিয়েই এখন টেলিপাড়ার হট টপিক৷

বিয়ের সিজনে সকলে দীপিকা-রনভীর, প্রিয়াঙ্কা-নিক, ইশা-পীরামলের বিয়ে নিয়ে চর্চা করে চলেছে৷ বলিউডের বিয়ের মেলায় বাদ গেল টলিপাড়াও৷ টেলিভিশন এবং টলিউড উভয় জায়গায়তেই কাজ করেছেন মহুয়া৷ তাঁর বিয়ের ছবি এখন সোশ্যাল মিডিয়ায় রীতিমত ভাইরাল৷

বিয়ের প্রথম ছবি আপলোড করতেই লাইকের বন্যা বয়ে গিয়েছে৷ তার সঙ্গে রয়েছে অসংখ্য শুভেচ্ছাবার্তা৷ মহুয়ার ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে প্রায়ই গুঞ্জন ছড়াতো ইন্ডাস্ট্রিতে৷ মহুয়ার বর আর কেউ নন অভিনেতা অরিত্র দত্ত৷

টেলিভিশন জগতেই কাজ করেন তিনি৷ বেশ কয়েকটি সিরিয়ালে পার্শ্বচরিত্রে অভিনয় করেছেন অরিত্র৷ টেলিভিশনের পাশাপাশি থিয়েটারও অভিনয় করেন অরিত্র৷ এবার আসা যাক বিয়ের কথায়৷ কনের সাজে মহুয়াকে দারুণ দেখাচ্ছে৷

পড়ুন: বাস্তবের ‘সুই-ধাগা’-য় জুড়ছে ওদের জীবন

এমনই নানা প্রশংসায় ভরে উঠছে কমেন্ট সেকশন৷ কেবল বিয়ে নয়, বউভাতেরও ছবি ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়৷ বিয়ের প্রতিটি সাজের জন্য মহুয়া গোলাপী রঙটি বেছে নিয়েছেন৷ প্রত্যেক শাড়িতে গোলাপী রঙের ছোঁয়া ছিল৷

অন্যদিকে লাল এবং গোলাপী মেশানো শেরওয়ানির সঙ্গে ট্যুইনিং করে অফওয়াইট রঙের মোদীকোট পরেছিলেন অরিত্র৷ বিয়ে এবং বউভাতের ছবি ছাড়াও রয়েছে আইবুড়োভাতের ছবি৷ দেখে নিন সেই অ্যালবাম৷

Satyaki Ghosal यांनी वर पोस्ट केले शनिवार, १५ डिसेंबर, २०१८

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.