কলকাতা: বাংলা সঙ্গীত জগতে ফের ছন্দপতন। থেমে গেল মহীনের ঘোড়াগুলি ব্যান্ডের এক ঘোড়ার যাত্রা। প্রয়াত হলেন ব্যান্ডের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা এবং নাট্যকর্মী রঞ্জন ঘোষাল। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৫। বৃহস্পতিবার ভোর ৫.৩০ টায় মৃত্যু হয় তাঁর।

মহীনের ঘোড়াগুলি ব্যান্ডের প্রথম দিন থেকে ছিলেন রঞ্জন ঘোষাল। বেশ কিছু গানের কথা লিখেছিলেন তিনি। সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলা, আর্টওয়ার্ক গুলি রেকর্ড রাখা, অ্যালবামের কভার ডিজাইন এবং প্রচার সমস্তর দায়িত্বে ছিলেন তিনি।

শুধু গান নয়। তার পাশাপাশি ইংরেজি ও বাংলা ভাষায় একাধিক কবিতা, গল্প এবং নাটক ও চলচ্চিত্রের চিত্রনাট্য লিখেছেন তিনি। বেঙ্গালুরুতে একটি থিয়েটার দলের জন্য সক্রিয়ভাবে নাট্যকর্মী হিসেবে কাজ করেছেন তিনি। একটি বিজ্ঞাপনী সংস্থায়ও কাজ করেন।

যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং নিয়ে পড়াশোনা করেছিলেন তিনি। বর্তমানে স্ত্রী সঙ্গীতা ও দুই ছেলে ইন্দ্রায়ুধ ও অভিমূন্যর সঙ্গে বেঙ্গালুরুতে থাকছিলেন।

২০১৯ এর অক্টোবরে একটি মিটু অভিযোগ উঠে রঞ্জন ঘোষাল এর বিরুদ্ধে। এমনকি তার বিরুদ্ধে পেডোফিলিয়া অভিযোগ ওঠে। সোশ্যাল মিডিয়ায় এক তরুণী এই সম্পর্কিত বেশ কিছু স্ক্রিনশট পোস্ট করে অভিযোগ এনেছিলেন। একাধিক মহিলাকে যৌন হেনস্থা করার অভিযোগ উঠেছিল। এমনকি সাহিত্যিক শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়ের মেয়ে দেবলীনা মুখোপাধ্যায়ও সোশ্যাল মিডিয়ায় এমনই অভিযোগ এনেছিলেন রঞ্জন ঘোষাল এর বিরুদ্ধে।

এরপরে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট করে ক্ষমা চান শিল্পী। তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ স্বীকারও করেন। কিন্তু সেই তার শেষ পোস্ট। এরপর তিনি ফেসবুক থেকে নিজেকে সম্পূর্ণভাবে সরিয়ে নিয়েছিলেন। গত ৭ জুন তার জন্মদিন ছিল। রঞ্জন ঘোষাল এর লেখা গানগুলির মধ্যে অন্যতম হলো পৃথিবীটা নাকি ছোট হতে হতে।

 

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ