মুম্বই : মূর্তি কাণ্ডের ঘটনার আঁচ গিয়ে পড়ল বলি পাড়াতেও। বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙার ঘটনার তীব্র নিন্দা করলেন পরিচালক মহেশ ভাট। টুইটারে মহেশ ভাট লিখেছেন, ” বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙার ঘটনা আদপে বাংলা ভাষার উপর আক্রমণ। বর্ণপরিচয়ের মাধ্যমে বিদ্যাসাগরই প্রথম বাংলাভাষাকে আরও অনেকটা সহজ সরল করে তুলেছিলেন।”

মঙ্গলবার বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙার ঘটনার পর থেকে রাজনৈতিক তরজায় সরগরম গোটা রাজ্য। ঘটনা ঘিরে একে অপরের দিকে আঙুল তুলতে ব্যস্ত তৃণমূল কংগ্রেস ও বিজেপি। মূর্তি ভাঙার ঘটনায় বিজেপিকে একহাত নিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বুধবারই শহরের রাস্তায় প্রতিবাদ মিছিল বের করার কথা জানিয়েছে তৃণমূল। অন্যদিকে, পুরো ঘটনায় তৃণমূলেরই হাত রয়েছে বলে পাল্টা তোপ দেগেছেন বিজেপি নেতা অমিত শাহ। নিন্দায় মুখর হয়েছেন বিদ্বজনেরা।গতকাল বিদ্যাসাগর কলেজে যে তাণ্ডব হয় এই রোড শো-কে ঘিরে, তার জন্য আঙুল তোলা হয় বিজেপির দিকে৷ বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙার ঘটনায় চরম পরিস্থিতিতে রাজ্য জুড়ে প্রতিবাদ মিছিলে নামে তৃণমূল থেকে বামফ্রন্ট৷ আর এরই মধ্যে দায়ের করা হল জোড়া এফআইআর৷

জানা গিয়েছে, আমহার্স্ট স্ট্রিট থানায় অভিযোগ দায়ের করেন বিদ্যাসাগর কলেজের ছাত্রছাত্রীরা। পাশাপাশি, জোড়াসাঁকো থানায় বিজেপির বিরুদ্ধে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীরাও এফআইআর দায়ের করে বলে সংবাদ মাধ্যম সূত্রে খবর৷ ২টি এফআইআর জামিন অযোগ্য ধারায় করা হয়েছে৷

গতকালের ঘটনায় অভিযোগ, কলেজের মধ্যে বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভেঙে দেওয়া থেকে মারধোর, শ্লীলতাহানি হয়েছে৷ যার সঙ্গে বিজেপির কর্মী সমর্থকেরাই যুক্ত বলে অভিযোগ৷ সব মিলিয়ে ক্ষুব্ধ পড়ুয়ারা৷ বিজেপির বিরুদ্ধে তাই দায়ের করা হল জোড়া এফআইআর৷