নয়াদিল্লি: ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে বিপুল ভোটে জয়ী হয়ে দ্বিতীয় বার সরকার গড়েছে নরেন্দ্র মোদী। ফের এবছরই দেশে গেরুয়া ঝড় বইতে পারে বলে জানিয়েছে এক জাতীয় সংবাদমাধ্যম। সামনেই হরিয়ানা এবং মহারাষ্ট্রে বিধানসভা নির্বাচন। চলছে জোর প্রস্তুতি। দুই বিধানসভা নির্বাচনেই বিজেপিই জিতবে বলে ওই সংবাদমাধ্যমের সমীক্ষা থেকে জানা যাচ্ছে।

এই দুই রাজ্যে মোদীর জনপ্রিয়তা এতই যে বিরোধীরা জোট করলেও তা বিজেপির ক্ষমতায় আসা আটকাতে পারবে না বলে দাবি করেছে ওই জাতীয় সংবাদমাধ্যম।

হরিয়ানায় ক্ষমতায় রয়েছে বিজেপি সরকারই। মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে রয়েছেন মনোহারলাল খাট্টা। এই বছরও তাঁকে সামনে রেখেই এগোচ্ছে বিজেপি। সমীক্ষা বলছে হরিয়ানা আরও একবার বিজেপিই ক্ষমতায় আসবে। যদিও মুখ্যমন্ত্রী মনোহর লাল খট্টরকে নিয়ে নানা রকমের অভিযোগ রয়েছে। কিন্তু উন্নয়নের দিকে এগিয়ে রয়েছেন তিনিই। তাই হরিয়ানায় বিধানসভা নির্বাচনে ৯০টির মধ্যে ৭৮টি আসনই বিজেপি পেতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।
অন্যদিকে মহারাষ্ট্রে ক্ষমতায় রয়েছে বিজেপিই। মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবিশের বিরুদ্ধে বিরোধী দল ক্রমশ দুর্বল হয়ে পড়ছে। গত বার বিজেপিকে শিবসেনার সাহায্য নিতে হয়েছিল। কিন্তু এবার একক সংখ্যাগরিষ্ঠতায় বিজেপি ক্ষমতায় আসবে বলে দাবি এই সমীক্ষার। যদিও মহারাষ্ট্র নির্বাচনে এবারও শিবসেনার সঙ্গেই হাত মিলিয়ে লড়ছে বিজেপি।

পাশাপাশি এই বছরের শেষে বৈঠক রয়েছে ঝাড়খন্ডেও। চলতি বছরের শেষে মেয়াদ শেষ হচ্ছে এই রাজ্যের বিধানসভার। আর তার আগে সেখানে ভোট করাতে হবে। সেই রাজ্যের উপরও সমীক্ষা চালিয়েছে ওই সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম। সমীক্ষা বলছে, ঝাড়খণ্ডে বিধানসভা নির্বাচনে ৮১টির মধ্যে ৫৫টি আসন বিজেপি পেতে পারে। মুখ্যমন্ত্রী রঘুবীর দাস এবারের লোকসভা নির্বাচনে ভাল ফল করে তাৎপর্যপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে। ফলে তাঁর কাঁধে হাত রেখেই সম্ভবত এগিয়ে যেতে পারে বিজেপি।