মুম্বই : রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের জন্য খুশির খবর। সব সরকারি কর্মচারীদের জন্য শুক্রবার বিশেষ ঘোষণা করল মহারাষ্ট্র সরকার। সপ্তাহে একবার অন্তত অফিসে হাজিরা দিতে হবে কর্মীদের, জানিয়ে দিয়েছে উদ্ধব ঠাকরে সরকার। রাজ্য সরকারের ঘোষণা ধীরে ধীরে লকডাউন উঠছে। তবু সতর্ক থাকতে হবে। তাই রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের সপ্তাহে একবার অফিসে হাজিরা দিতে হবে।

খুব ধীরে স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে চাইছে মহারাষ্ট্র। সেই লক্ষ্যেই এই ঘোষণা। মিশন বিগিন এগেইন-এই প্রকল্পের আওতায় সব ক্ষেত্রের কাজ আস্তে আস্তে চালু করা হোক বলে জানিয়েছে রাজ্য সরকার। সপ্তাহে একবার অফিস আসার ঘোষণায় একটা সুবিধা হবে বলে মনে করছে রাজ্য সরকার। করোনার জেরে প্রচুর কর্মী বিনা অনু্মতিতে ছুটি নিয়েছেন। সেই সব ছুটি বাতিল করে সপ্তাহে একবার অফিসে আসার নির্দেশ দিয়েছে সরকার। অর্থ দফতরের তরফ থেকে একটি বিজ্ঞপ্তিও এই মর্মে জারি হয়ে গিয়েছে।

উল্লেখ্য যে দিন যে কর্মীর উপস্থিত থাকার কথা , সেদিন তিনি উপস্থিত না থাকলে তাঁর বিরুদ্ধে বিচারবিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ৮ই জুন থেকে এই নিয়ম কার্যকর করা হবে। এদিকে, দেশে চলছে আনলক ১। সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে করোনা প্রকোপ। শেষ ২৪ ঘন্টায় করোনা আক্রান্ত হলেন ৯৮৫১ জন। মৃত্যু হয়েছে ২৭৩ জনের।

শেষ ২৪ ঘন্টায় আক্রান্ত ও মৃত্যু বাড়ার ফলে দেশে এখন পর্যন্ত মোট মৃত্যু বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬৩৪৮ এ। দেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২ লক্ষ ২৬ হাজার ৭৭০। এর মধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছে ১ লক্ষ ৯ হাজার ৪৬২ জন। দেশে বর্তমানে অ্যাক্টিভ কেস রয়েছে ১ লক্ষ ১০ হাজার ৯৬০ টি। স্বাস্থ্যমন্ত্রক সূত্রে এখবর মিলেছে।

দেশের মধ্যে সর্বাধিক করোনা সংক্রামিত রাজ্য মহারাষ্ট্র। সেখানে আক্রান্ত প্রায় ৭৭ হাজার। মৃত্যু হয়েছে ২ হাজার ৫০০ জনের বেশি। এরপরেই তালিকায় নাম তামিলনাড়ূর। সেখানে মোট আক্রান্ত ২৫ হাজার ছাড়িয়েছে, মৃত ২০০ জনের বেশি। আক্রান্তের বিচারে দিল্লি রয়েছে তৃতীয় নম্বরে সেখানে আক্রান্ত প্রায় ২৩ হাজার মানুষ। মৃত্যুতে তামিলনাড়ুতে টেক্কা দিয়ে এখানে সংখ্যাটা ৬০০ পার করে ফেলেছে। চতুর্থ হিসেবে রয়েছে গুজরাত ও পঞ্চম স্থানে নাম রয়েছে রাজস্থানের।

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প