মুম্বই: মহারাষ্ট্রের সরকার গঠনে তৈরি হতে পারে নতুন রাজনেতিক সমীকরণ। সূত্রের খবর, শিব সেনার সঙ্গে জোটে সম্মতি দিয়েছেন সোনিয়া গান্ধী।

জানা যাচ্ছে, বুধবার মহারাষ্ট্রে সরকার গঠনের জন্য শিব সেনার সঙ্গে জোটের ক্ষেত্রে অনুমতি দিয়েছেন তিনি। সোমবার এনসিপি চিফ শরদ পাওয়ারের সঙ্গে বৈঠক ছিল সোনিয়া গান্ধীর। সেখানেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে সূত্রের খবর।

মন্ত্রিসভায় ভাগাভাগি কীভাবে হবে, তার হিসেব কষতে বুধবার সন্ধেয় সুপ্রিয় সুলের বাড়িতে বৈঠকে বসবেন এনসিপি নেতারা। সেখানেই এইসব বিষয়ে আলোচনা হবে। যদি আলোচনা সুষ্ঠভাবে হয়, তাহলে ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহেই সরকার গঠনের দাবি জানাবে কংগ্রেস ও এনসিপি।

সোমবার বৈঠক শেষে এনসিপি প্রধান স্পষ্ট জানান, ‘সরকার নিয়ে নয়, মহারাষ্ট্রের রাজনৈতিক পরিস্থিতি সম্পর্কে সোনিয়াজির সঙ্গে কথা হয়েছে। কংগ্রেস ও এনসিপি নেতারা ফের বৈঠক করবেন।’

কংগ্রেসের ভূমিকায় কপালে চিন্তার ভাঁজ পড়ে স্বাভাবিক উদ্ধব ঠাকরেদের। এদিকে, একদা শরিক বিজেপিকে নিয়ম করে আক্রমণ করে চলেছে সেনা শিবির। এতে দলের নেতা, কর্মীদের মনবল অটুট থাকবে বলে মনে করছে শিব সেনার একাংশ। দলীয় মুখপত্র ‘সামনায়’ মহারাষ্ট্র থেকে গেরুয়া শিবিরকে ‘উপড়ে’ নেওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছে শিবসেনার। ‘দাম্ভিকাতার রাজনীতির শেষের শুরু’ বলে সতর্ক করেছে উদ্ধব ঠাকরে, সঞ্জয় রাউতরা। সম্রাট মহম্মদ ঘোরির সঙ্গে বিজেপির তুলনা টেনে বলা হয়েছে, ‘দল এতদিন মহারাষ্ট্রে বহু অকৃতজ্ঞদের সহ্য করেছে, এবার তাদের শেষ করার সময় এসেছে।’

পপ্রশ্ন অনেক: নবম পর্ব

Tree-bute: আমফানের তাণ্ডবের পর কলকাতা শহরে শতাধিক গাছ বাঁচাল যারা