মুম্বই: করোনা আক্রান্ত রাজ্যগুলির মধ্যে অন্যতম মহারাষ্ট্র। প্রবল করোনা প্রকোপের মধ্যে রাজ্য সরকার যথাসাধ্য চেষ্টা করেছে করোনা মোকাবিলায়। রবিবার সোশ্যাল মিডিয়ায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী ঠাকরে জানিয়েছেন, আগামী ৬ মাস রাজ্যে মাস্ক পড়া বাধ্যতামূলক।

পাশাপাশি তিনি জানান, বিশেষজ্ঞরা লকডাউনের পক্ষে কথা বললেও রাজ্য সরকার এখনও লকডাউনের রাস্তায় হাঁটতে রাজি না। নতুন বছর উদযাপনের সময় সাধারণ মানুষকে কঠোর সাবধানতা অবলম্বন করার আবেদন জানিয়েছেন উদ্ধব ঠাকরে। তবে এখন মুম্বইয়ে করোনার পরিস্থিতি কিছুটা নিয়ন্ত্রণে।

আরও পড়ুন – BREAKING: অনুব্রতের গড়ে শাহের রোড শো, হাজির প্রচুর বিজেপি কর্মী সমর্থক

সোশ্যাল মিডিয়ায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে ঠাকরে বলেন, “আগামী ৬ মাস প্রকাশ্যে মাস্ক পড়া অভ্যাস করা দরকার। কোনও কিছুর চিকিৎসার চেয়ে তা প্রতিরোধ করা সবচেয়ে ভালো উপায়।” পাশাপাশি তিনি জানান, যারা সুরক্ষা নিয়ম মানছেন না, তাঁদের জানা উচিৎ, তাঁরা জীবন নিয়ে খেলছেন।

করোনা নিয়ে সাধারণ মানুষকে সচেতন করে ঠাকরে বলেন, যেভাবে ইউরোপীয় দেশগুলিতে করোনার অন্যান্য ধরণ আবিষ্কার করা হয়েছে তাতে একটা বিষয় স্পষ্ট, যে সতর্কতা ছাড়া বিকল্প কোনও বিকল্প নেই।

আরও পড়ুন – ‘আমি তো পাগলা ষাঁড় হয়ে যাইনি’, বিজেপি যোগের জল্পনা উড়িয়ে বললেন দিব্যেন্দু

উল্লেখ্য, মহারাষ্ট্রে করোনা সংক্রমণ কিছুটা নিম্নমুখী হলেও সারা দেশে করোনা সংক্রমণ অব্যহত। শেষ ২৪ ঘন্টায় দেশে করোনা আক্রান্ত হয়েছে ২৬ হাজার ৬২৪ জন। এই সময়ের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে আরও ৩৪১ জনের।

নতুন সংক্রমণ ও মৃত্যুর জেরে দেশে মোট সংক্রমণ পৌঁছে গিয়েছে ১ লক্ষ ৩১ হাজার ২২৩ এ। মোট মৃত্যুর সংখ্যা পৌঁছে গিয়েছে ১ লক্ষ ৪৫ হাজার ৪৭৭ জনে। মোট আক্রান্তের মধ্যে অ্যাক্টিভ আক্রান্তের সংখ্যা রয়েছে ৩ লক্ষ ৫ হাজার ৩৪৪ টি। করোনা আক্রান্ত হওয়ার পরেও সুস্থ হয়ে উঠেছে মোট ৯৫ লক্ষ ৮০ হাজার ৪০২ জন। শেষ ২৪ ঘন্টায় ২৬ হাজার ৬২৪ জন যেমন আক্রান্ত হয়েছেন, তেমনই সুস্থ হয়ে উঠেছেন ২৯ হাজার ৬৯০ জন।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।