কলকাতা: মহানায়ক উত্তমকুমারের ৪০তম প্রয়াণ দিবস উপলক্ষে প্রতিবছরের মতো এবারও অনুষ্ঠিত হল ‘মহানায়ক সম্মান’। আয়োজক পশ্চিমবঙ্গ সরকার। পাঁচজন তারকাদের হাতে তুলে দেওয়া হল এই সম্মান। এবছরের মত বাংলা চলচ্চিত্র জগতে সেরা ছবি, সেরা পরিচালকের সম্মানিত করা হল এই সম্মানে। নজরুল মঞ্চে এই উপলক্ষে ছিল চাঁদের হাট। মঞ্চে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়ের সাথে উপস্থিত ছিলেন দেবশ্রী রায়, ইন্দ্রনীল সেন, সৃজিত মুখোপাধ্যায়, রাজ চক্রবর্তী, সুবোধ সরকার সহ আরও অনেকে।

এক নজরে দেখে নেওয়া যাক কে কি পেলেন:

‘মহানায়ক সম্মান ২০১৯’ সেরা অভিনেত্রীর সম্মান দেওয়া দেওয়া হল তনুজাকে। (ছবি:সোনার পাহাড়)

সেরা অভিনেতা- ঋত্বিক চক্রবর্তী। (ছবি:নগরকীর্তন, জ্যেষ্ঠপুত্র, ভিঞ্চি দা)

সেরা পরিচালক- কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায় (ছবি: নগরকীর্তন)

সেরা ছবি ‘এক যে ছিলো রাজা’।

সেরা চিত্রনাট্যকার- সৃজিত মুখোপাধ্যায়। (ছবি:এক যে ছিলো রাজা)

সেরা প্রযোজনা সংস্থার সম্মান দেওয়া হয়েছে এসভিএফ ও অ্যাক্রোপলিশ এন্টারটেনমেন্ট-কে।

সেরা উদীয়মান পরিচালকের সম্মান পেয়েছেন ধ্রুব বন্দ্যোপাধ্যায়কে। (ছবি: দুর্গেশগড়ের গুপ্তধন)

সেরা সঙ্গীত পরিচালক প্রসেন। (ছবি: শাহজাহান রিজেন্সি)

সেরা চিত্রগ্রাহক শুভঙ্কর ভড়। (ছবি: ব্যোমকেশ গোত্র)

সেরা কস্টিউম ডিজাইনার গোবিন্দ মণ্ডল। (ছবি: নগরকীর্তন)

সেরা শিশু শিল্পীর সম্মান দেওয়া হয়েছে যশজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়কে। অ্যাডভেঞ্চার অব জোজো ছবির জন্য।

সেরা রূপসজ্জার সম্মান পেলেন রামচরণ রাজ্জাক। (ছবি: নগরকীর্তন)

এদিন মুখ্যমন্ত্রী জানান, সঙ্গীতশিল্পী সহ শিল্প জগতের অন্যান্য বিশিষ্টজনদের স্বাস্থ্য বিমাদের ব্যবস্থা করবেন। বর্ষীয়ান শিল্পীদের কথাই এদিন উঠে আসে মমতার মুখে।

তবে উঠছে নানা প্রশ্ন। রাজনৈতিক রং কতটা প্রভাব ফেলেছে এর অন্দরে তা নিয়ে। পাঁচ জন সম্মান প্রাপকের তিন জনের নাম নিয়ে এমন প্রশ্ন ওঠা স্বাভাবিক। মোট পাঁচজনকে মহানায়ক সম্মান দিয়েছে রাজ্য সরকার।

দেবশ্রী রায়, ইন্দ্রাণী হালদার, যীশু সেনগুপ্ত, পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়, শতাব্দী রায়। এই তালিকায় থাকা তিন অভিনেত্রীর মধ্যে একজন বিধায়ক, একজন সাংসদ। ইন্দ্রাণী হালদারও মুখ্যমন্ত্রীর ঘনিষ্ঠ হিসেবেই পরিচিত। তিনি আবার রাজ্য সরকার গঠিত কমিটির সদস্য।