ডাবলিন: দেশের অভিষেক টেস্টে অনন্য নজির আইরিশ ক্রিকেটারের৷ অভিষেকেই টেস্টে সেঞ্চুরি করে ঐতিহাসিক টেস্ট ম্যাচকে আরও গৌরোজ্জ্বল করলেন কেভিন জোসেফ ও’ ব্রায়েন৷ সোমবার মালাহাইডের পড়ন্ত বিকেলে আইরিশ অল-রাউন্ডারের শতরান আয়ারল্যান্ডের ক্রিকেটকে আরও সমৃদ্ধ করল৷

ও’ব্রায়েনের দুরন্ত শতরানে ফলো-অন করেও পাকিস্তানের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ফিরল আয়ারল্যান্ড৷ সোমবার চতুর্থ দিনের শেষে দ্বিতীয় দিনের শেষ সাত উইকেটে ৩১৪ রান তুলেছে আয়ারল্যান্ড৷ ১৩৯ রানের লিড আইরিশদের৷ ১১৮ রানে ক্রিজে রয়েছেন ও’ব্রায়েন এবং ৮ রানে কেন৷ এর আগে বাঁ-হাতি পাক পেসার মহম্মদ আমেরের বলে দু’রান নিয়ে সেঞ্চুরিতে পৌঁছন ও’ব্রায়েন৷ ১৮৬ বলে ১০টি বাউন্ডারির সাহায্যে শতরানে পৌঁছন তিনি৷ দেশের হয়ে প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরির স্বাদ পেলেন ৩৪ বছরের আইরিশ অল-রাউন্ডার৷

ইতিহাসের সাক্ষী থেকে আবেগঘন হয়ে পড়েন ও’ব্রায়েন৷ দিনের শেষে তিনি বলেন, ‘ টেস্ট অভিষেক সেঞ্চুরি অবশ্যই স্পেশাল৷ তার পর কঠিন পরিস্থিতির মধ্যে এই সেঞ্চুরিটা এসেছে৷ দিনের শেষ ঘণ্টায় আমি ভীষণ ক্লান্ত ছিলাম৷ আশা করি শনিবার আমরা লড়াই চালিয়ে যেতে পারব৷’ দেশের জার্সিতে শেষ শতরানটা এসেছিল ২০১১ বিশ্বকাপে৷ বেঙ্গালুরুতে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ১১৩ রানের ইনিংস খেলে ওয়ান ডে ক্রিকেটে তাঁর দ্বিতীয় সেঞ্চুরিটা করেছিলেন ও’ব্রায়েন৷ বিশ্বকাপে এটা দ্রুততম সেঞ্চুরি৷ মাত্র ৫০ বলে সেঞ্চুরি করে নজির গড়েন এই আইরিশ ক্রিকেটার৷ তিনি বলেন, ‘আমার শেষ শতরানটা ছিল সাত বছর আগে৷ সুতরাং অনেক দিন সেঞ্চুরিটা বাকি ছিল৷’

মালাহাইডে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে টেস্ট অভিষেক হয় আয়ারল্যান্ডের৷ শুক্রবার বৃষ্টির জন্য টেস্টের প্রথম দিনে মাঠে বল গড়ায়নি৷ কিন্তু দ্বিতীয় দিন থেকে রোদ ঝলমলে আহবাওয়ায় টেস্টের আঙিনায় পা-রাখেন আইরিশ ক্রিকেটাররা৷ প্রথম ইনিংসে পাকিস্তান ৯ উইকেটে ৩১০ রানে ডিক্লেয়ার্ড দেয়৷ রান তাড়া করতে নেমে প্রথম ইনিংসে মাত্র ১৩০ রানে গুটিয়ে যায় আয়ারল্যান্ড৷ একমাত্র লড়াই করেছিলেন কেভিন৷ ৪০ রানের দুরন্ত ইনিংস খেলেছিলেন তিনি৷