মালদহ:  ২০১৯ এ মাধ্যমিক পরীক্ষার প্রথমদিন থেকেই একের পর এক বিষয়ের প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়ায়ে। সাতটি বিষয়ের প্রশ্নই ফাঁস হয়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়া। এহেন ঘটনায় প্রশ্নের মুখে পড়ে যায় মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। গতবারের থেকে শিক্ষা নিয়ে এবার আরও বেশি সতর্ক ছিল পর্ষদ। পরীক্ষা চলাকালীন কেন্দ্রের আশেপাশের জায়গায় ইন্টারনেট বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

এমনকি, বাড়তি নিরাপত্তারও ব্যবস্থা করা হয়। শুধু পরীক্ষার্থীদের জন্যে নয়, শিক্ষকদের জন্যেও একগুচ্ছ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় পর্ষদের জন্যে। কিন্তু এরপরেও আটকানো গেল না প্রশ্নপত্র ফাঁস।

মাধ্যমিক শুরু হতেই হোয়াটসঅ্যাপে ছড়িয়ে পড়ল প্রথম ভাষার প্রথম পত্রের প্রশ্নপত্র। আজ মঙ্গলবার বেলা ১২টার পর মালদহের বিভিন্ন অংশে হোয়াটসঅ্যাপে ঘুরতে থাকে প্রশ্নপত্র। আজ বাংলা ভাষার প্রথম পত্রের পরীক্ষা ছিল। অভিভাবকদের দাবি, ওই প্রশ্নপত্র আজকের পরীক্ষারই।

যদিও হোয়াটসঅ্যাপে মেলা প্রশ্নপত্র আদৌ ফাঁস হওয়া প্রশ্ন কিনা তা যাচাই করা হয়নি। জেলার পরীক্ষা আহ্বায়ক বিপ্লব গুপ্ত প্রশ্নফাঁসের বিষয়টি অস্বীকার করেছেন। এই ঘটনার পরেই স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে পর্ষদের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে। যদিও এবিষয়ে এখনও মধ্যশিক্ষা পর্ষদের তরফ কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।