ভোপাল: পাল্টা ভাঙন রুখতে অতি-সাবধানী গেরুয়া শিবির। মধ্যপ্রদেশের দলীয় বিধায়কদের মঙ্গলবার রাতেই উড়িয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে দিল্লিতে। বিজেপি বিধায়কদের সঙ্গে রয়েছেন খোদ প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা বিজেপির বর্ষীয়ান নেতা শিবরাজ সিং চৌহান। বিজেপি বিধায়কদের আপাতত দিল্লি পুলিশের নজরদারিতেই রাখা হয়েছে। বিজেপি সূত্রে জানা গিয়েছে, মধ্যপ্রদেশে কমলনাথ সরকারের আস্থা ভোট পর্যন্ত বিধায়কদের দিল্লিতেই নজরবন্দি রাখতে চান মোদী-শাহরা।

২১ কংগ্রেস বিধায়ককে নিয়ে কংগ্রেস ছেড়েছেন জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া। দল ছাড়া ওই কংগ্রেস বিধায়কদের মধ্যে মধ্যপ্রদেশ মন্ত্রিসভার ৬ সদস্যও রয়েছেন। একসঙ্গে ২২ বিধায়ক দল ছাড়ায় মধ্যপ্রদেশে গদিচ্যুত হওয়ার মুখে মুখ্যমন্ত্রী কমলনাথ।

মধ্যপ্রদেশে কংগ্রেস সরকারের পতন এখন শুধু সময়ের অপেক্ষা মাত্র। মধ্যপ্রদেশে কমলনাথ মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পর থেকেই তাঁর সঙ্গে সম্পর্ক খুব একটা মধুর ছিল না জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়ার। একাধিক ইস্যুতে রাজ্য সরকারের সমালোচনাও করতে দেখা গিয়েছে জ্যোতিরাদিত্যকে। সম্প্রতি শিক্ষকদের দাবি-দাওয়া প্রসঙ্গে রাজ্য সরকারকে তুলোধনা করেন জ্যোতিরাদিত্য।

এদিকে, ২২ কংগ্রেস বিধায়কের পদত্যাগে টালমাটাল কমলনাথের কুর্সি। বিজেপি নেতা ভূপেন্দ্র সিংয়ের দাবি, আরও ৮ কংগ্রেস বিধায়ক ইস্তফা দেবেন শীঘ্রই। তাঁরাও যোগ দেবেন বিজেপিতে। তবে মঙ্গলবার রাত পর্যন্ত নতুন করে কোনও কংগ্রেস বিধায়ক ইস্তফা দেননি।

অন্যদিকে, ভেঙে পড়লেও এখনই মচকাচ্ছেন না কমলনাথ। তাঁর দাবি সময়েই সংখ্যাগরিষ্ঠতার প্রমাণ দেবে তাঁর সরকার। দুঁদে রাজনীতিবিদ কমলনাথকে এতটুকুও হালকাভাবে নিচ্ছে না বিজেপিও। তাই তড়িঘড়ি মধ্যপ্রদেশ থেকে সরানো হয়েছে দলের বিধায়কদের। খাস মোদী-শাহদের নাকের ডগায় এনে রাখা হয়েছে দলের বিধায়কদের। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের অধীনে থাকা দিল্লি পুলিশ মধ্যপ্রদেশের বিধায়কদের উপর নজরদারি চালাচ্ছে।

রাজনৈতিক মহলের ব্যাখ্যা, অমিত শাহের ক্ষুরধার মস্তিষ্কই কমলনাথের কুর্সি টলিয়ে দিয়েছে। মধ্যপ্রদেশের কংগ্রেস সরকারের পতনের নেপথ্যে রয়েছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর মস্ত চাল। তাই এখন দিল্লিতে হলেও প্রয়োজনে পরে অন্য কোথাও সরানো হতে পারে মধ্যপ্রদেশ বিজেপি বিধায়কদের।

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV