ভিন্ড: অনেক রকম অদ্ভুত নিদর্শন দেখতে পাওয়া যায় ইতিহাস ঘাঁটলে। বাস্তবের সঙ্গে যার মিল খুঁজতে গেলে অসম্ভব বলে মনে হয়। এরকমই এক অদ্ভুত ঘটনা ঘটেছে মধ্যপ্রদেশের ভিন্ড জেলাতে। এক ব্যক্তি দুই বোনকে একসঙ্গে বিয়ে করেছেন।

এর আগে কলকাতাতে এই ধরণের ঘটনা দেখতে পাওয়া গিয়েছিল। যেখানে দুই বোন একসঙ্গে একজনকেই বিয়ে করেছিল। কেননা তারা একে অপরকে ছেড়ে থাকার কথা কখনও ভাবতেও পারতেন না। তাই বাকি জীবন একসঙ্গে কাটানোর সিদ্ধান্ত নিয়ে এই বিয়ে করেছিলেন এবং শুরু করেছিলেন নিজেদের ব্যবসা। যদিও একসঙ্গে দুজনকে বিয়ে করেননি। একজনকে আইন মেনে বিয়ে করেছিলেন তা সত্ত্বেও অন্যজন সব কিছু মেনে একসঙ্গে ছিলেন। তবে এবারে এক অন্য ধরণের ঘটনা ঘটল মধ্যপ্রদেশে।

বরের নাম দিলীপ যিনি নিজের শ্যালিকা রচনাকে বিয়ে করার আগে বিনীতা অর্থাৎ তার দিদিকে বিয়ে করেছিলেন। বিনীতা গুরাভেলি গ্রামের সরপঞ্চের মেয়ে। ৯ বছর আগে তাঁদের বিয়ে হয় তাঁদের ৩ সন্তান রয়েছে।

দিলীপের তরফ থেকে জানা গিয়েছে, প্রথম স্ত্রী বিনীতা তার এই সিদ্ধান্তকে মেনে নিয়েছেন। আর সেই কারণেই বিয়ের অনুষ্ঠানে শ্যালিকাকে বিয়ে করার সঙ্গে সঙ্গে আবার নিজের প্রথম পক্ষের স্ত্রীকে বিয়ে করেছেন। এছাড়াও জানা গিয়েছে প্রথম পক্ষের স্ত্রী অসুস্থ। সন্তানদের দেখাশোনা করার জন্য কাউকে প্রয়োজন সেই কারণেই এই সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হয়েছেন।

দিলীপ দাবি করেছেন, তিনি তার প্রথম স্ত্রীকে আগে থেকেই জানিয়েছিলেন যে তিনি তার শ্যালিকা রচনাকে পছন্দ করেন এবং বিয়ে করতে চান। প্রথম পক্ষের স্ত্রী মেনে নেওয়াতে একই বিয়ের অনুষ্ঠানে দুজনের সঙ্গেই মাল্যদান করেছেন।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও