জলপাইগুড়িঃ ফের বড়সড় মধুচক্রের আসর ফাঁস। বাংলার উত্তরে রমরমিয়ে দেহ ব্যবসা। পুলিশের গোপন অভিযানে ফাঁস হল সেই চক্র।

জলপাইগুড়িতে বেশ কিছুদিন থেকে অভিযোগ আসছিল জলপাইগুড়ি শহরের কদমতলা মোড়ের একটি হোটেলের আড়ালে অসামাজিক কাজ চলছে। হোটেলে মহিলা, পুরুষ ও যুবক যুবতিদের আনা গোনা লেগেই থাকত বলে অভিযোগ। ওই হোটেলের মালিকের নিচে পাশেই ছিল ওষুধের দোকান। আর সেই দোকানে উপরে হোটেলের একটি রুমেই ছিল ডাক্তারের চেম্বার। পাশেই রুমের আড়ালে চালিয়ে যাচ্ছিল হোটেলে অসামাজিক কাজ বলে অভিযোগ।

শনিবার দুপুরে হঠাত করেই গোপনে ওই হোটেলে অভিযান চালায় কোতয়ালি থানায় আই সি বিশ্বাশ্রয় সরকারের নেতৃত্বে পুলিশ বাহিনী। অভিযোগ, আপত্তিকর অবস্থায় দুই মহিলাকে ধরে ফেলে পুলিশ। দুই যুবক ও দুই মহিলাকে হোটেল থেকে আটক করা হয়। অন্যদিকে হোটেলের মালিক বিশ্বজিৎ মজুমদারকে গ্রেফতার করে ও হোটেলের দুই কর্মী সহ মোট সাত জনকে থানায় নিয়ে আসে পুলিশ।

জলপাইগুড়ি জেলা পুলিশ সুপার অভিষেক মোদী বলেন, হোটেলের আড়ালে মধুচক্র চলছিল। অভিযোগ পেয়ে চার যুবক দুই মহিলা ও মালিককে গ্রেফতার করা হয়েছে। তদন্ত শুরু হয়েছে। ইতিমধ্যে হোটেলটি সিল করে দেওয়া হয়েছে বলে পুলিশের তরফে। তবে আগামীদিনে এমন অভিযান পুলিশের তরফে আরও চালানো হবে বলে জানানো হয়েছে।