লখনউ: দেশের ইতিহাসে এরকম লকডাউন আগে কখনো দেখা যায়নি। বুধবার থেকে শুরু হয়েছে টানা ২১ দিনের লকডাউন। আর তার প্রথম দিনে নানা ধরনের অদ্ভুত ঘটনা ঘটতে দেখা গেল দেশের বিভিন্ন জায়গায়।

কোথাও জমায়েত ভাঙতে লাঠি চালালো পুলিশ, আবার কোথাও লক্ষণ রেখার মধ্যে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা গেল দোকানে লাইন দেওয়া জনগণকে। তবে বুধবার সকালে পুলিশের দিকে ছুটলেন এক মহিলা। দেশে মহিলা নন, তিনি নাকি গড ওম্যান।

উত্তরপ্রদেশের মেহেদা পূর্ব এলাকায় দেখা গেল এই দৃশ্য। মঙ্গলবার রাতে লকডাউন ঘোষণা হওয়ার পর বুধবার সকালেই তিনি ঠিক করলেন বাড়িতে ডাকবেন তাঁর ভক্তদের। তাঁর কথামতো হাজির হয়েছিল ভক্তরাও। লখনৌ থেকে ৩০০ কিলোমিটার দূরে তার বাড়ির সামনে হাজির হয়েছিলেন অন্তত ১০০ ভক্ত।

ভক্তদের জমায়েত ভাঙতে লাঠি নিয়ে ছুটলো পুলিশ। আর ওই মহিলা জেদ ধরলেন তিনি সেখান থেকে কিছুতেই নড়বেন না। তার পরনে ছিল লাল শাড়ি, হাতে তলোয়ার। তিনি নিজেকে মা আদিশক্তি হিসেবে বর্ণনা করেন। টাইপ পুলিশের শক্তির কাছে কিছুতেই হার মানতে রাজি নন তিনি।

মোবাইলে তোলা ভিডিও ফুটেজে ধরা পড়েছে সেই দৃশ্য। দেখা গিয়েছে পুলিশ মৃদু লাঠিচার্জ করে সেখান থেকে ভক্তদের সরাচ্ছে। অবশেষে ওই মহিলাকে তরবারি সমেত সরিয়ে নিয়ে যায় পুলিশ। আর তখন ওই মহিলার চিৎকার করে বলছে আমি আমার নিজের ইচ্ছে এসেছি দেখি কে আমাকে সরায়ে।

২১ দিনের লকডাউনের বুধবারই ছিল প্রথম দিন। আর এদিন ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়ালো ৬০০। বুধবার রাত পর্যন্ত হিসাব অনুযায়ী করো না আক্রান্তের সংখ্যা ৬০৬, মৃতের সংখ্যা ১২।

উত্তরপ্রদেশে আক্রান্তের সংখ্যা ৩৮। মোট ১৭০৭ জনের নমুনা পরীক্ষা হয়েছে, অন্যদিকে দিল্লিতে নতুন করে পাঁচজনের আক্রান্ত হওয়ার খবর মিলেছে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।