জয়পুর: গোলাপি শহরে ‘রয়্যালস বধ’ করে ফেরে লিগ তালিকায় শীর্ষস্থানে নাইটরা৷ রবিবারে রাতে জয়পুরে অজিঙ্ক রাহানেদের হেলায় হায়িয়েছে ডিকে অ্যান্ড কোং৷ ১৪০ রান তাড়া করে মাত্র দু’ উইকেট হারিয়ে জয় তুলে নেয় কলকাতা৷ দুই নাইট ওপেনারের ব্যাটে লক্ষ্যে পৌঁছে যায় কেকেআর৷ লিন ৫০ এবং নারিন ৪৭ রান করে আউট হন৷ তবে দুই ওপেনারই জীবনদান পান৷ স্টাম্পে বল লাগা সত্ত্বেও বেল না পড়ায় বেঁচে যান ক্রিস লিন৷

তবে চলতি আইপিএলে জিং বেল বিতর্ক নতুন নয়৷ গত রবিবার বেল না-পড়ার কারণে রান-আউট হতে গিয়ে বেঁচে যান কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের ওপেনার কেএল রাহুল৷ চেন্নাই সুপার কিংস অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি উইকেটের পিছনে থেকে রাহুল রান-আউট করার চেষ্টা করেন৷ কিন্তু বেল না-পড়ায় রাহুলকে আউট দেননি আম্পায়ার৷ যদিও সিএসকে অধিনায়ক এ নিয়ে কোনও অভিযোগ করেননি৷ একই ঘটনা ঘটেছিল রাজস্থান রয়্যালসের বিরুদ্ধে ধোনির ব্যাটিংয়ের সময়৷ জোফরা আর্চারের বোলিংয়ের বিরুদ্ধে ধোনি ব্যাটিংয়ের সময় বল স্টাম্পে লাগলেও বেল না-পড়ায় বেঁচে যান সিএসকে ক্যাপ্টেন৷

রাজস্থানের বিরুদ্ধে লিনও বেল না-পড়ার কারণে আউট হতে গিয়ে বেঁচে যান৷ শুধু তাই নয়, বল স্টাম্পে লেগে বাউন্ডারির বাইরে চলে গেলে কেকেআর-এর খাতায় চার রান যোগ হয়৷ কিন্তু রাজস্থান রয়্যালস অধিনায়ক ডেড বলের আবেদন করলেও আম্পায়ার তাতে সাড়া দেননি৷ ভাগ্য সঙ্গ দেওয়ায় দলের সর্বোচ্চ ৫০ রান করে দলকে জেতান লিন৷ রান তাড়া করতে নেমে হাসতে হাসতে ম্যাচ জিতে নেয় কলকাতা৷ ১৪০ রান তাড়া করে ১৩.৫ ওভারে মাত্র দু’ উইকেট হারিয়ে ম্যাচ জিতে নেয় কেকেআর৷

রয়্যালসকে হারিয়ে ফের লিগ শীর্ষে পৌঁছে যায় কেকেআর৷ পাঁচ ম্যাচে চারটি জিতে এক নম্বরে নাইটরা৷ সমান পয়েন্ট হলেও রান-রেটে পিছিয়ে থাকায় দু’ নম্বরে চেন্নাই সুপার কিংস৷ মঙ্গলবার অবশ্য আমনে-সামনে কলকাতা-চেন্নাই৷ চিপকের বাইশ গজে লিগ তালিকায় এক ও দুইয়ের লড়াই৷