সিডনি: মন্দ আলো কিংবা বৃষ্টি বাধা না হয়ে দাঁড়ালে অজিদের বিরাট ফলো-অন হতে পারত শনিবারই। কিন্তু শনির দুপুরে তা না হওয়ায় ছুটির দিন সকাল হতে না হতেই অস্ট্রেলিয়ার ল্যাজে-গোবরে হওয়া দেখতে যারা চোখ রেখেছিলেন টেলিভিশনের পর্দায়, তাঁদের ফের হতাশ করল ‘ভিলেন’ বৃষ্টি।

নিজেদের হারের কোনও আশঙ্কাই নেই। পাশাপাশি অস্ট্রেলিয়াকে হারাতে না পারলেও আটকাবে না সিরিজ জয়। দরকার শুধুমাত্র ড্র। কিন্তু সিডনি টেস্টের চতুর্থ দিন মর্নিং সেশন যেন লজ্জার হাত থেকে বাঁচালো পেইনদের। বৃষ্টির কারণে চতুর্থদিন মর্নিং সেশনে সিডনিতে খেলা হল না একটি বলও। অজিদের ফলো-অনের অপেক্ষা দীর্ঘায়িত হল এদেশের ক্রিকেট অনুরাগীদের জন্য।

এর আগে শনিবার ভারতের বিশাল ৬২২ রানের বোঝা মাথায় নিয়ে ২৩৬ রানে তৃতীয় দিনের খেলা শেষ করে ভারত। কিন্তু এই রান তুলতে প্যাভিলিয়নে ফিরে যান অজি ব্যাটিং লাইন আপের ছয়-ছয়জন ব্যাটসম্যান। ফলো-অনের আশঙ্কা গ্রাস করে ব্যাগি গ্রিন শিবিরে। তবে দিনের শেষ সেশনে মন্দ আলো তৃতীয়দিনের মত বাঁচিয়ে দেয় টিম পেইনের দলকে।

যদিও সিডনিতে ‘জেন ম্যাকগ্রা ডে’তে শুরুটা খারাপ হয়নি অজিদের। দ্বিতীয় সেশনে বোলাররা ভারতকে ম্যাচে ফেরালেও প্রথম সেশনটা কিন্তু ছিল অস্ট্রেলিয়ার নামেই। ৬২২ রানের পাহাড় তাড়া করতে নেমে শুরুটা খারাপ করেনি অজিরা৷ হ্যারিস-খোয়াজার প্রথম উইকেটের জুটিতে ওঠে ৭২ রান৷ কুলদীপের শিকার হয়ে খেয়াজা ২৭ রানে ফিরতে ইনিংসের হাল ধরে হ্যারিস৷ নবাগত লাবুসানেকে নিয়ে তৃতীয় উইকেটে ৫৬ রান জোড়ে বাম-ডান জুটি৷

ভারতীয় বোলারদের বিরুদ্ধে শুরু থেকেই চালিয়ে খেলতে শুরু করেন অজি ওপেনার হ্যারিস৷ ৬৭ বলে পাঁচটি বাউন্ডারির সাহায্যে অর্ধশতরান পূর্ণ করেন৷ হ্যারিসের মারকাটারি ব্যাটিংয়ে ইনিংসের ৩০ ওভারের মধ্যেই একশো রানের গণ্ডি পেরিয়ে যায় অস্ট্রেলিয়া৷

শুরুটা দুর্দান্ত করলেও মধ্যাহ্নভোজের বিরতির পরই অজি ব্যাটিংয়ে ছন্দপতন৷ স্পিন কাঁটায় বিদ্ধ হয়ে একে একে ফিরে যান হ্যারিস-লাবুসানেরা৷ শতরান মাঠেই ফেলে আসেন হ্যারিস৷ ৭৯ রানে জাদেজার শিকার হয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন বাঁ-হাতি ওপেনার৷ অফ সাইডের বাইরের বল তাড়া করতে গিয়ে বোল্ড হয়ে সাজঘরে ফেরেন চলতি সিরিজে অজিদের হয়ে সর্বোচ্চ রান প্রাপক৷

এরপর লাবুসানেকে ৩৮ রানে রাহানের হাতে বন্দি করান শামি৷ জাদেজার শিকার হয়ে ৮ রানে আউট হন মার্শ৷ ট্রাভিস হে়ডকে ২০ রানে তুলে নেন কুলদীপ৷ তৃতীয়দিন চা পান বিরতি থেকে ফিরে অজি অধিনায়ক টিম পেইনকে ৫ রানে প্যাভিলিয়নে পাঠান ভারতীয় চায়নাম্যান৷ শনিবার অজিদের ছয় উইকেটের মধ্যে পাঁচটি ভাগাভাগি করে নেন কুলদীপ-জাদেজা জুটি৷ ভারতের বিরুদ্ধে ফলো-অন বাঁচাতে এখনও অজিদের তুলেতে হবে ১৮৭ রান৷