নয়াদিল্লি : করোনা আবহে চলতি বছরের শেষ চন্দ্রগ্রহণ দেখা যাবে ৩০ নভেম্বর। আর এটাই হল ২০২০ সালের শেষ চন্দ্রগ্রহণ। যদিও বছর শেষের চন্দ্রগ্রহণের সাক্ষী থাকতে পারবে না দেশবাসী৷ সোমবার অর্থাৎ ৩০ নভেম্বর দুপুর ১:০৪ মিনিটে চন্দ্র গ্রহণ শুরু হবে এবং ৫:২২ মিনিটে ছেড়ে যাবে।

আর সেই সময় চাঁদ দিগন্তের নীচে থাকবে যার কারণে এটি ভারতে দৃশ্যমান হবে না। আর তাইতো বছরের শেষ চন্দ্রগ্রহণ দেখতে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভরসা সকলের।

এছাড়াও চলতি বছরে মোট ৩টি চন্দ্রগ্রহণ দেখা গিয়েছে। প্রথমটি ১০ জানুয়ারি, দ্বিতীয়টি ৫ জুন ও তৃতীয়টি ৪ জুলাই হয়। এ বছর মোট ৬টি গ্রহণের কথা ছিল। আগামী ১৪ ডিসেম্বর সূর্যগ্রহণ হওয়ার কথা।

তবে চন্দ্র গ্রহণ দেখা যাবে ইউরোপ, এশিয়া, অস্ট্রেলিয়া, উত্তর আমেরিকা, দক্ষিণ আমেরিকা, প্রশান্ত মহাসাগর ও আটলান্টিক মহাসাগরের বিভিন্ন অংশে । তবে, আবহাওয়া কেমন থাকবে, তার উপর নির্ভর করছে চন্দ্রগ্রহণ দৃশ্যমান হবে কিনা। কুয়াশা থাকলে চন্দ্রগ্রহণ দেখা যাবে না।

পৃথিবীতে মোট তিন ধরণের চন্দ্র গ্রহণ দেখা যায়। এর মধ্যে ৩০ নভেম্বর যে গ্রহণ দেখা যাবে তার নাম হল, ‘বেভার মুন’। এটি পৃথিবীর অন্যান্য অংশেও দেখা যাবে। যেহেতু এখন বিভার ট্র্যাপিংয়ের মরসুম চলছে।

যদিও সোমবারের এই চন্দ্র গ্রহণ সবার প্রথমে দেখা যাবে পেরু এবং লিমাতে৷ সেখানকার স্থানীয় সময় সকাল ২:৩২ মিনিটে এই চন্দ্র গ্রহণ লাগবে। এছাড়াও পরবর্তী পূর্ণ চন্দ্র গ্রহণ হবে ২০২১ সালের ২৬ মে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।