লখনউ: গত ২২শে জুলাই ইসরো থেকে সফল ভাবে উৎক্ষেপণ করা হয়েছিল চন্দ্রযান২। ধীরে ধীরে চাঁদের কক্ষপথে প্রবেশ করতে শুরু করেছে চন্দ্রযান । আর আগামী ৭ সেপ্টেম্বর পুরোপুরি ভাবে চাঁদে প্রবেশ করবে ভারতীয় চন্দ্রযান ২। যার ফলে মহাকাশ গবেষণার ক্ষেত্রে ভারতের মুকুটে যোগ হতে চলেছে এক নতুন পালক।
কী ভাবে চন্দ্রযান চাঁদের কক্ষ পথে ঢুকবে তা সরাসরি লাইভ দেখা যাবে ইসরোর বেঙ্গালুরুর হেডকোয়াটারের কন্ট্রোল রুম থেকে।

দেশের এই গর্বিত মুহূর্তের সাক্ষী থাকবে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্রমোদী আর তাঁর সঙ্গে এই লাইভ শো দেখতে ইসরোর কন্ট্রোল রুমে উপস্থিত থাকবেন সারা দেশের বিভিন্ন প্রান্তের ৬০ জন মেধাবী পড়ুয়া। ঝাড়খণ্ড, ছত্তিশগড়, ওড়িশা, মেঘালয় সহ দেশের অন্যান্য রাজ্য গুলিথেকে উপস্থিত থাকবে ওইসব পড়ুয়ারা।

ইসরোর হেডকোয়ার্টারে বসে এই লাইভ শো দেখার সুযোগ পেয়েছে লখনউ’এর এক কৃষক পরিবারের মেয়ে দিল্লি পাবলিক স্কুলের দশম শ্রেণীর ছাত্রী রাশি ভার্মা। সংবাদ মাধ্যমের সঙ্গে সাক্ষাৎকারে রাশি জানিয়েছে, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বসে ৭ তারিখ চন্দ্রযান২ এর লাইভশো দেখার জন্য ইসরোর কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে বিজ্ঞানের উপর একটি কুইজ প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছিল। সেই কুইজ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী অন্যান্য ৬০ জনের মধ্যে সফল হয় লখনউ এর রাশিও।

জানা গিয়েছে, ইসরোর তরফে এই কুইজ প্রতিযোগিতা নেওয়া হয়েছিল গত অগস্ট মাসের ১০ থেকে ২৫ তারিখের মধ্যে। পুরো বিজ্ঞানের উপর তৈরি হওয়া এই কুইজ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহনকারীদের জন্য ছিল মোট ২০টি প্রশ্ন এবং পরীক্ষার সময়সীমা দেওয়া ছিল মাত্র ১০ মিনিট। দশ মিনিটের প্রতিযোগিতায় উত্তীর্ণ হয় ৬০ জন মেধাবী পড়ুয়া । তাঁদের কে আগামী ৭ তারিখ মোদীর সঙ্গে বসে সকাল ১টা ৫৫ মিনিটের চন্দ্রযান২ এর লাইভ দেখার শংসাপত্র দেওয়া হয় ইসরোর পক্ষ থেকে।

ইসরোর এই বাছাই তালিকার অন্তর্ভুক্ত রাশি ভার্মা সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছে, ‘ আমি সব সময় স্বপ্ন দেখি একজন ভালো ‘আইএএস’ অফিসার হওয়ার’। সেই সঙ্গে অনেক দিনের ইচ্ছা ছিল ভারতের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সামনা সামনি কথা বলার, অবশেষে আমার একটা স্বপ্ন পূরণ হতে চলেছে আগামী মাসে’।

চেরাপুঞ্জির রামকৃষ্ণমিশন হাইস্কুলের ছাত্র রিবৈত পাহয়া আদতে মেঘালয়ের বাসিন্দা সেও চান্স পেয়েছে ৭ সেপ্টেম্বর বেঙ্গালুরুর হেড কোয়াটারে বসে চন্দ্রযানের এই লাইভ দেখার। সংবাদ সংস্থা পিটিআই কে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে রিবৈত বলেছে, ‘ ভারতের এই ঐতিহাসিক মুহূর্তের সাক্ষী থাকতে পারবো ভেবে আমি গর্বিত, শুধু তাই নয় সেদিন কন্ট্রোল রুমে আমাদের সঙ্গে উপস্থিত থাকবেন দেশের প্রধানমন্ত্রীও যা ভেবে আপ্লুত আমি’।

পিটিআই সূত্রে জানা গিয়েছে, ভারতের এই দ্বিতীয় চন্দ্রযান অভিযান পুরোপুরি সফল হলে আমেরিকা, সোভিয়েত রাশিয়া এবং গণপ্রজাতন্ত্রী চিনের পরই ভারত হবে বিশ্বের চতুর্থতম দেশ যারা সফল ভাবে চাঁদে অভিযান চালাতে পেরেছে।