নয়াদিল্লি: পাসপোর্টে দেখা গিয়েছে পদ্মফুলের জলছাপ। আর তা নিয়েই শুরু হয়েছে বিতর্ক। বিদেশমন্ত্রকে এই বিষয়টি নজরে আসতেই লোকসভায় তা নিয়ে প্রশ্ন তোলে বিরোধীরা। যদিও বৃহস্পতিবারই বিদেশমন্ত্রক জানিয়ে দিয়েছে, পাসপোর্টের সুরক্ষা বাড়ানোর জন্যই তাতে জাতীয় ফুলের ছাপ দেওয়া শুরু হয়েছে। দেশের অন্য জাতীয় চিহ্নও পর্যায়ক্রমে ব্যবহার করা হবে।

কেরলের কোঝিকোড়েতে যে নতুন পাসপোর্ট বিলি করা হয়েছে তাতে যে পদ্মফুলের ছাপ রয়েছে। এই বিষয় জিরো আওয়ারে জানান বিরোধীরা। কংগ্রেসের এম কে রাঘবন জানান, বিষয়টি একটি সংবাদপত্রে ছাপা হয়েছে, সেখানেই উল্লেখ করা হয়েছে গৈরিকিকরণের দিকে আরও একধাপ এগনো হল। কারণ কেন্দ্রের শাসকদল বিজেপির নির্বাচনী প্রতীক হল পদ্ম।

এই ব্যাপারে প্রশ্ন করা হলে বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র রবীশ কুমার বলেন, ‘এটা আমাদের জাতীয় ফুলের চিহ্ন, জাল পাসপোর্ট রুখতে সুরক্ষা আরও একধাপ বাড়ানোর জন্যই বাড়তি ফিচার যোগ করা হয়েছে।’ তিনি জনিযেছেন, আন্তর্জাতিক অসামরিক বিমান সংস্থার (আইসিএও) নির্দেশিকা মেনেই এই সিদ্ধান্ত।

তিনি জানিয়েছেন, ‘পদ্মফুল ছাড়াও অন্য জাতীয় চিহ্নগুলি পর্যায়ক্রমে ব্যবহার করা হবে। পরের মাসে অন্যকিছু ব্যবহার করা হবে। যেগুলি ব্যবহার করা হবে দেশের সঙ্গে তার যোগ থাকবে, যেমন জাতীয় ফুল বা জাতীয় পশু।’

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।