স্টাফ রিপোর্টার, বর্ধমান: কথাতেই আছে বাঙালির বারো মাসে তেরো পার্বন৷ আর এই পার্বণের কথা আসলেই উঠে আসে চাঁদার জুলুমবাজি৷ দুর্গা পুজো যেতে না যেতেই শুরু হয়ে গিয়েছে কালী পুজোর চাঁদার জুলুম৷ রাস্তায় গাড়ি আটকে চাওয়া হচ্ছে কালী পুজোর চাঁদা৷ এই ঘটনাকে ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়াল পূর্ব বর্ধমানের গুসকরা অভিরামপুর রোডের আনন্দবাজার বাউরীপাড়া এলাকায়৷

অভিযোগ, কালী পুজোর জন্য গুসকরা অভিরামপুর রোডে আনন্দবাজার বাউরী পাড়াতে চাঁদা তুলচ্ছিল কিছু যুবক। সেই সময় গুসকরাগামী দুটি লরিকে তারা আটকে দেয়৷ এবং জোর পূর্বক লরি দুটির থেকে তারা চাঁদা নেয়। চাঁদা নেওয়া হলে গাড়ি ছেড়ে দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই একটি লড়ির চালককে লক্ষ্য করে ঢিল ছোড়ে এক যুবক। ঢিল গিয়ে লাগে লরির চালকের মাথায়। মাথা ফেটে যায় ওই লরি চালকের৷ এই ঘটনায় রাস্তাতেই লরি থামিয়ে দেন তিনি। আহত লরি চালকের নাম সরিফ সেখ (২৬)। গলসীর পুরষা গ্রামের বাসিন্দা তিনি।

এই ঘটনায় অন্যান্য গাড়ির চালকরা ক্ষোভে ফেটে পড়েন৷ তাঁরা রাস্তাতেই গাড়ি থামিয়ে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে৷ ফলে বেশ কিছুক্ষণ যানজট সৃষ্টি হয় গুসকরা-অভিরামপুর রাস্তায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে আউশগ্রাম থানা ও গুসকরা বীট হাউসের পুলিশ। তারাই অভিযুক্তদের ধরার প্রতিশ্রুতি দিলে অবরোধ তুলে নেন চালকরা। তারপর তারাই যান চলাচল স্বাভাবিক করে৷