কলকাতা: গত কয়েকদিন ধরে বাংলা ধারাবাহিকে আলোচনার শীর্ষে ‘কৃষ্ণকলি।’ এক কালো মেয়ের গল্প, যার গলায় মুগ্ধ করা সুর। এই নিয়ে শুরু হয়েছিল সিরিয়াল। তারপর বাঙালির সঙ্গে আত্মার সম্পর্ক তৈরি হয়েছে কেন্দ্রীয় চরিত্র শ্যামার। তার জীবনের উত্থান-পতনে চোখ রাখতেই অনেকেই অপেক্ষা করেন পরের এপিসোডের।

তবে এরই মধ্যে ট্যুইস্ট। ফর্সা হয়ে গেলেন সেই শ্যামা। যা নিয়ে বিতর্কও রয়েছে। শুধু গায়ের রঙই নয়, পোশাক বদলে এক্কেবারে বোল্ড আধুনিক লুকে ধরা দিয়ে সকলকে চমকে দিয়েছেন শ্যামা ওরফে অভিনেত্রী তিয়াসা রায়।
আসলে সম্প্রতি, ‘কৃষ্ণকলি’ ধারাবাহিকের নতুন একটি প্রোমো প্রকাশ্যে এসেছে। যেখানে ধরা পড়েছে শ্যামার নতুন চেহারা। প্রোমোতে দেখা যাচ্ছে, শ্যামার স্বামী নিখিল কিছুতেই স্ত্রী’র মৃত্যুর কথা বিশ্বাস করতে চাইছেন না। শ্যামার স্মরণসভায় তাঁর ছবিতে লাগানো মালা ছুঁড়ে ফেলে দিতে দেখা যাচ্ছে নিখিলকে। সে কোনওভাবেই মানতে নারাজ শ্যামা আর নেই। তারপরই গাড়িতে যেতে যেতে নিখিলের চোখে পড়ে বাইক চড়ে আসা অবিকল শ্যামার আধুনিকা মহিলাকে।

কিন্তু আসলে কেমন এই তিয়াসা? শ্যামা না গৌরী?

সোশ্যাল মিডিয়ায় অভিনেত্রী তিয়াসার একগুচ্ছ ছবি রয়েছে। আর তাতে চোখ রাখলেই বোঝা যাবে শ্যামা আসলে ফর্সা। সুন্দরীও বটে। অভিনেতা সুবান রায়ের সঙ্গে তাঁর বিয়ে হয় ২০১৭ সালে। তার পরেই, টেলিপর্দায় ডেবিউ করেন তিনি গত বছর, ২০১৮ সালে।

সুবান ও তিয়াসার আলাপ একটি নাটকের ওয়ার্কশপে। ২০১৭ সালে শারদোৎসবে পঞ্চমীর দিন প্রথম তিয়াসাকে দেখেন সুবান। অষ্টমীতে সুবানের বাড়িতে আমন্ত্রণ জানানো হয় তিয়াসাকে। তার কিছুদিনের মধ্যেই বাজে তাঁদের বিয়ের সানাই। বিয়ের মাত্র ছয় মাস পর স্বামীর হাত ধরে ছোট পর্দায় আসেন তিয়াসা।

বিয়ের ছয় মাসের মধ্যেই ‘কৃষ্ণকলি’ সিরিয়ালে কাজ করার অফার পান তিয়াসা। কিছুদিনের মধ্যে সুবান-তিয়াসার সম্পর্কে ফাটল ধরার খবরও শোনা গিয়েছিল। যদিও দু’জনেই সেই সম্ভাবনার কথা উড়িয়ে দিয়েছে।